রায়পুর: ভোট শুরুর আগেই বিস্ফোরণ ছত্তিসগড়ে। এদিন ভোরে সাড়ে ৫টা নাগাদ টুমাকপাল-নয়নার রোডে মাওবাদীরা আইইডি বিস্ফোরণ ঘটায়। ভোটকর্মী ও নিরাপত্তারক্ষীদের তাক করেই বিস্ফোরণ ঘটানো হয়েছিল বলে সূত্রের খবর।

তবে এই ঘটনায় হতাহতের কোনও খবর নেই। সকলেই নিশ্চিন্তে পোলিং বুথে পৌঁছে গিয়েছেন।

ছত্তিসগড়ের ১৮টি বিধানসভা কেন্দ্রে চলছে ভোট। শেষ কয়েকদিনে পরপর মাওবাদী হামলার জেরে বেশ কয়েকজনের প্রাণ গিয়েছে। তাই আতঙ্কে রয়েছেন নিরাপত্তারক্ষী থেকে শুরু করে সাধারণ মানুষ। এরই মধ্যে শুরু হয়েছে প্রথম দফার ভোটগ্রহণ। তার মধ্যে এদিন সকালে ফের বিস্ফোরণ ঘটিয়েছে মাওবাদীরা।

মাও অধ্যুষিত এই এলাকাগুলিতে নিরাপত্তা প্রদান করতে গিয়ে দুই দফায় ভোটগ্রহণ করতে হচ্ছে। সবমিলিয়ে পর্যাপ্ত পরিমাণে নিরাপত্তারক্ষী নিয়োগ করা হয়েছে। প্রায় ৯০০ জন ভোটকর্মীকে হেলিকপ্টারে চাপিয়ে ভোটকেন্দ্রে পৌঁছে দেওয়া হয়েছে। এছাড়া ১৬, ৫০০ জন সড়কপথে গিয়েছেন।

সুকমা এবং বিজাপুরে প্রায় ৪৩৭টি বুথ রয়েছে। যার মধ্যে ৮০টি বুথে ভোটকর্মীদের হেলিকপ্টারের মাধ্যমে পৌঁছানোর ব্যবস্থা করেছে নির্বাচন কমিশন৷ এছাডা়ও ৭৬টি বুথ কেন্দ্রকে সরিয়ে নিয়ে আসা হয়েছে৷ কিন্তু এরপর ৪০টি মাওবাদী অধুষ্যিত জায়গাতে ভোট করাতে যাওয়ার অর্থ এক প্রকার মৃত্যু৷ কয়েকদিন আগেই এসব জায়গাতে স্কুলে ভোট বয়কটের ডাক দিয়ে পোস্টার চিটিয়েছে মাওবাদীরা৷

পপ্রশ্ন অনেক: চতুর্থ পর্ব

বর্ণ বৈষম্য নিয়ে যে প্রশ্ন, তার সমাধান কী শুধুই মাঝে মাঝে কিছু প্রতিবাদ