নয়াদিল্লি: COVID-19 হটস্পটগুলিতে করোনা আক্রান্তের দ্রুত শণাক্তকরণের জন্য অ্যান্টিবডি ব্লাড টেস্ট প্রয়োজন, এমন পরামর্শ দিচ্ছেন ইন্ডিয়ান কাউন্সিল অফ মেডিক্যাল রিসার্চ।

যে সব জায়গা থেকে একসঙ্গে অনেক COVID-19 পসিটিভ কেস বেরচ্ছে সেই সব অঞ্চলে অ্যান্টিবডি ব্লাড টেস্টের মাধ্যমে দ্রুত সনাক্ত করার পরামর্শ দিয়েছে আইসিএমআর।

করোনা ভাইরাস সংক্রমণের ক্ষেত্রে কোনো ব্যক্তির প্রতিরোধ ক্ষমতায় COVID-19 রয়েছে কি না এটির হাত থেকে নিজেকে পুনরুদ্ধার করেছে, তা শনাক্ত করতে এই র‍্যাপিড অ্যান্টিবডি পরীক্ষা ব্যবহার করা যেতে পারে। পরীক্ষাটি ৩০ মিনিটেরও কম সময়ে করোনা ভাইরাসের অতীত বা বর্তমান সংস্পর্শের প্রমাণ শনাক্ত করতে পারে।

অ্যান্টিবডি ব্লাড টেস্টের ফলে ‘অ্যান্টিবডি পজিটিভ’ রিপোর্ট আসবে তাঁদের করোনাভাইরাস সংক্রান্ত আরও বেশ কয়েকটি পরীক্ষা-নিরীক্ষা করা হবে। মূলত গলা এবং নাকের সোয়াব টেস্ট হবে। এই পরীক্ষার রিপোর্ট আসতে সময় লাগবে ৬ ঘণ্টা। আর যাঁদের ‘অ্যান্টিবডি নেগেটিভ’ রিপোর্ট আসবে তাঁদের হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকতে হবে।

ভারত সরকার এখনও পর্যন্ত মোট ৯টি করোনা ভাইরাস হটস্পট চিহ্নিত করেছে। নিজামুদ্দিন ছাড়াও সেই তালিকায় রয়েছে দিল্লির দিলশাদ গার্ডেন, লাদাখ, পাঞ্জাবের এসবিএস নগর, রাজস্থানের ভিলওয়ারা, মহারাষ্ট্রের মুম্বই এবং পুণে আর কেরলের কাসারগোদ এবং পথানামিথিত্তা। এই ৯টি জায়গাতেই ফাস্ট ট্র্যাক কিটের সাহায্যে বাসিন্দাদের অ্যান্টিবডি টেস্ট করার পরামর্শ দিয়েছে মেডিক্যাল কাউন্সিল।

বেশির ভাগ মানুষের ক্ষেত্রে করোনাভাইরাস সংক্রমণের ফলে হালকা বা মাঝারি উপসর্গ হিসাবে জ্বর এবং সর্দি-কাশি সৃষ্টি হয়। তবে অন্যদের ক্ষেত্রে, বিশেষত বয়স্ক এবং অন্যান্য রোগে আক্রান্তদের এটার সংক্রমণে নিউমোনিয়ার মতো মারাত্মক লক্ষণ দেখা দিতে পারে।