মুম্বই: শুধুমাত্র আর্থিক ফলাফল নিয়েই কথা হল আইসিআইসিআই ব্যাংকের পরিচালন পর্ষদের বৈঠকে। ভিডিওকনকে অনৈতিক ভাবে ঋণ দেওয়া নিয়ে সংস্থার কর্ণধার চন্দা কোছরের বিরুদ্ধে ওঠা স্বজনপোষণের অভিযোগের বিষয়টি অবশ্য ওই বৈঠকে সোমবার আলোচনায় উঠল না। বৈঠক শেষে সে কথা নিজেই জানান চন্দা।

যদিও ইতিমধ্যে এই কাণ্ড নিয়ে এখন বিতর্ক দানা বেধেছে সারা দেশে। তদন্তে নেমেছে সিবিআই। পাশাপাশি অভিযোগ খতিয়ে দেখছে আয়কর দফতর ও এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেটও।

তবে এর আগেও যেখানে চন্দার পাশে দাঁড়িয়ে ছিল পর্ষদ এবং জানিয়েছিল , ২০১২ সালে সংস্থাকে ৩,২৫০ কোটি টাকা ঋণ মঞ্জুরের সিদ্ধান্ত নিয়েছিল ব্যাংকের ক্রেডিট কমিটি, চন্দা একা নন। ফলে স্বার্থের সংঘাতের প্রশ্ন ওঠে না।

এদিকে ব্যাংক জানিয়েছে, ওই গত অর্থবর্ষের চতুর্থ ত্রৈমাসিকের অনুৎপাদক সম্পদ খাতে সংস্থান বাড়ানোয় তাদের সার্বিক নিট মুনাফা ৪৫% কমেছে ১,১৪২ কোটি। মোট অনুৎপাদক সম্পদ বেড়ে পৌঁছেছে ঋণের ৮.৮৪ শতাংশে।

প্রশ্ন অনেক: দশম পর্ব

রবীন্দ্রনাথ শুধু বিশ্বকবিই শুধু নন, ছিলেন সমাজ সংস্কারকও