লন্ডন: আইসিসি’র তিন নম্বর ওয়ান ডে বোলার৷ টি-২০ ক্রিকেটে বিশ্বসেরা৷ স্বাভাবিকভাবেই সীমিত ওভারের ক্রিকেটে অত্যন্ত ধারাবাহিক রশিদ খান বিশ্বক্রিকেটের প্রথম সারির ব্যাটসম্যানদের থেকে বাড়তি সমীহ আদায় করে নেন৷ এহেন আফগান লেগ-স্পিনার চলতি বিশ্বকাপে এখনও পর্যন্ত নজর কাড়তে ব্যর্থ৷ অফ-ফর্মে থাকা রশিদের কেরিয়ারের সব থেকে খারাপ দিন যায় মঙ্গলবার ওল্ড ট্র্যাফোর্ডে৷

আয়োজক ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে বল হাতে বেধড়ক ঠ্যাঙানি খেলেন রশিদ৷ ইয়ন মর্গ্যানদের আগ্রাসনের সামনে অসহায় রশিদ ৯ ওভারে খরচ করেন ১১০ রান৷ একটিও উইকেট তুলতে পারেননি৷ বিশ্বকাপের ইতিহাসে এখনও পর্যন্ত এটিই সব থেকে খারাপ বোলিং পারফরম্যান্স৷

এমন লজ্জার নজির গড়ে স্বাভাবিকভাবেই হতাশ রশিদ৷ আফগান তারকার কাটা ঘায়ে নুনের ছিটে দিয়ে বিতর্কের সৃষ্টি করে আইসল্যান্ড ক্রিকেট বোর্ড৷ নিজেদের অফিসিয়াল টুইটার পেজে আইসল্যান্ড ক্রিকেট রশিদকে বিদ্রুপ করে একটি পোস্ট করে, যা নিয়ে প্রতিবাদে সরব হন বহু প্রাক্তন ও বর্তমান ক্রিকেটার৷ রশিদের পাশে দাঁড়িয়ে স্টুয়ার্ট ব্রড, জোফ্রা আর্চার, ইশ সোধি, বিষেণ সিং বেদির মতো তারকারা আইসল্যান্ড ক্রিকেট বোর্ডের টুইটের নিন্দা করেছেন৷

আইসল্যান্ড ক্রিকেটের তরফে টুইটে রশিদের ছবি পোস্ট করে লেখা হয়, ‘আমরা এইমাত্র শুনলাম রশিদ খান আফগানিস্তানের হয়ে ২০১৯ বিশ্বকাপে প্রথম সেঞ্চুরি করেছেন৷ ওয়াও৷ ৫৬ বলে ১১০৷ বিশ্বকাপে কোনও বোলারের করা সব থেকে বেশি রান বা এইরকন কিছু৷ দারুণ ব্যাট করেছ ইয়ং ম্যান’৷

এমন ব্যঙ্গাত্মক টুইটের বিরুদ্ধে প্রতিবাদী হতে দেখা যায় ইংল্যান্ডের তারকা পেসার স্টুয়ার্ট ব্রডকে, যিনি নিজেও একদিন এমন খারাপ সময়ের মধ্য দিয়ে গিয়েছেন৷ ২০০৭ টি-২০ বিশ্বকাপে যুবরাজ সিংয়ের কাছে এক ওভারে ৬টি ছক্কা হজম করা ব্রড রি-টুইট করে রশিদকে সমর্থন করেন৷ তিনি লেখেন, ‘রশিদ বিশ্বমানের বোলার এবং ওর খেলা দেখতে অসাধারণ লাগে৷ আমাদের খেলায় প্রত্যেকের খারাপ দিন যায়৷’

আর এক ব্রিটিশ ক্রিকেটার লিউক রাইট লেখেন, ‘জঘন্য টুইট৷ কাউকে নিয়ে মজা করার থেকে তাঁর সম্পর্কে শ্রদ্ধাশীল হওয়া উচিত যে কী না ক্রিকেটের জন্য, বিষেশ করে অ্যাসোসিয়েট ক্রিকেটের জন্য অনেক কিছু করেছে৷’

প্রাক্তন ভারতীয় তারকা বিষেণ সিং বেদি রি-টুইটে লেখেন, ‘হতবাক করার মতো টুইট৷ বেল্টের নীচে আক্রমণ করার চেষ্টা স্পষ্ট৷ ব্যক্তিগতভাবে আমি মনে করি, গত দিনের হতাশাজনক ঘটনার পর রশিদ খান আরও ভালো ও আরও পরিণত বোলার হতে চলেছে৷ সব কিছুই ক্রিকেটের অঙ্গ৷ চোয়াল শক্ত কর রশিদ৷ আল্লাহ সুরক্ষিত রাখুন তোমাকে৷’

জোফ্রা আর্চার আইসল্যান্ড ক্রিকেটের টুইটটিকে ‘ভয়ানক টুইট’ আখ্যা দেন৷ ইশ সোধি লিউক রাইটের মতামতকে সমর্থন করে লেখেন, ‘আমিও একমত৷ রশিদ বিশ্বের লেগ স্পিনারদের জন্য অন্য একটি বেঞ্চ মার্ক তৈরি করেছে৷’