নয়াদিল্লি: বর্তমানে অতিরিক্ত দূষণের প্রভাব যে সাধারণ মানুষের উপরে পড়ছে তা একাধিক বিজ্ঞানী জানিয়েছিলেন। এও জানিয়েছিলেন যে গ্লোবাল ওয়ার্মিং এর কারণে মেরুপ্রান্তের বরফ ক্রমেই গলে যাচ্ছে। বাড়ছে জলস্তর। সম্প্রতি এই রকম একটি সত্য সামনে আসাতে অবাক হয়েছে বিজ্ঞানীরা।

এই গ্লোবাল ওয়ার্মিং এর জেরে নদী এবং থোয়েটস যা সরাসরি সমুদ্রকে মূল অ্যান্টার্টিকার সঙ্গে যুক্ত করে তার জলস্তর ক্রমশ বাড়ছে। আশঙ্কা করা হচ্ছে কোনওভাবে এই বিশ্ব উস্নায়নের জেরে এটি যদি ভেঙে যায় তাহলে সমুদ্র পৃষ্ঠের স্বাভাবিক অবস্থা থেকে চার ফুট জলস্তর বেড়ে যাবে। আর যার প্রভাব পড়বে সাধারণ মানুষের উপরে।

উপগ্রহের পাঠানো ছবি থেকে জানা গিয়েছে একটি বিরাট এলাকার বরফ ধীরে ধীরে ছোট টুকরো হয়ে ভেঙে পড়ছে। যাকে বলা হচ্ছে পিগলেট। একাধিক বিজ্ঞানীরা এই বিষয়টি নিয়ে কয়েক বছর ধরে পরীক্ষা করছেন। এই কাজে প্রধান উদ্যোক্তা ইউরোপিয়ান স্পেস এজেন্সি। উপগ্রহের তোলা ছবি থেকে দেখা গিয়েছে প্রায় ১২০ স্কোয়ার মাইল এলাকা ধীরে ধীরে ছোট টুকরো হয়ে মূল ভূখন্ড থেকে আলাদা হয়ে যাচ্ছে।

পাইন আইল্যান্ড অ্যান্টার্টিকার সব থেকে দুর্বলতম হিমবাহের মধ্যে একটি। পাশপাশি সমুদ্রের সঙ্গে সংযোগ স্থাপনে যথেষ্ট গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা নিয়ে থাকে। তাই এই আইল্যান্ড যদি গ্লোবাল ওয়ারমিং এর কারণে গলতে থাকে বা যদি ভেঙে যায়। তাহলে কিন্তু তা যথেষ্ট উদ্বেগের।