কলম্বো: শ্রীলঙ্কা ক্রিকেটে দুর্নীতি নিয়ে গুরুতর অভিযোগের বিষয়টি গুরুত্ব সহকারেই খতিয়ে দেখছে ক্রিকেটের সর্বোচ্চ নিয়ামক সংস্থা। আইসিসি’র দুর্নীতি দমন শাখার জেনারেল ম্যানেজার অ্যালেক্স মার্শাল বুধবার এক বিবৃতিতে জানিয়েছেন, ‘ধারাবাহিক ভাবে তদন্ত এগিয়ে চলেছে। চূড়ান্ত কোনও রিপোর্ট না পাওয়ার আগে এবিষয়ে কিছু মন্তব্য করা সম্ভব নয়।’

মার্শাল আরও জানিয়েছেন, শ্রীলঙ্কার রাষ্ট্রপতি, সেদেশের প্রধানমন্ত্রী এবং ক্রীড়ামন্ত্রীর সঙ্গে এবিষয়ে প্রতি মুহূর্তে যোগাযোগ রেখে চলেছে আইসিসি। দুর্নীতি দমন শাখার জেনারেল ম্যানেজারের কথায়, সেদেশের সরকার এবং ক্রীড়ামন্ত্রকের অনুরোধেই দুর্নীতির বিষয়টি গুরুত্ব সহকারে তদন্ত করছে আইসিসি’র দুর্নীতি দমন শাখা। যথাসময়েই আসল সত্য উদঘাটন হবে।’

ঘরোয়া টি২০ লিগের ম্যাচে দুর্নীতি ঘিরে কয়েকমাস আগে উত্তাল হয় শ্রীলঙ্কার ক্রিকেট। বিশ্বের সামনে দেশের ক্রিকেটের ভাবমূর্তি উজ্জ্বল করতে তৎপর হয়ে ওঠে সেদেশের প্রশাসন। দুর্নীতি সংক্রান্ত যাবতীয় ঘটনা পুঙ্খানুপুঙ্খ তদন্তের দায়িত্বভার তুলে দেওয়া হয় আইসিসি দুর্নীতি দমন শাখার হাতে। তার পরিপ্রেক্ষিতেই দ্বীপ রাষ্ট্রে ক্রিকেটীয় দুর্নীতির বিষয়ে পুর্ণাঙ্গ তদন্তে নেমেছে আইসিসি।

এরইমধ্যে ৫টি একদিনের ম্যাচ, একটি টি২০ এবং একটি টেস্ট খেলতে শ্রীলঙ্কা পৌঁছে গিয়েছে ইংল্যান্ড দল। ইংল্যান্ড ক্রিকেট বোর্ডও আইসিসি’র সঙ্গে এই দুর্নীতি দমনে সহযোগীতা করছে বলে জানা গিয়েছে। তবে তদন্তের ঘটনা ইংল্যান্ডের শ্রীলঙ্কা সফরে কোন প্রভাব ফেলবে না বলেই জানিয়েছেন আইসিসি’র দুর্নীতি দমন শাখার জেনারেল ম্যানেজার অ্যালেক্স মার্শাল।

আগামি ১০ অক্টোবর ডাম্বুলায় প্রথম একদিনের ম্যাচে মুখোমুখি হবে শ্রীলঙ্কা-ইংল্যান্ড। এশিয়া কাপের পর একদিনের অধিনায়ক পদে অ্যাঞ্জেলো ম্যাথিউজের স্থলাভিষিক্ত হয়েছেন দীনেশ চাঁদিমল। তাঁর নেতৃত্বেই ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে অভিযান শুরু করছে দ্বীপ রাষ্ট্রটি।