নয়াদিল্লি: বিসিসিআই বনাম আইসিসি টানাপোড়েন দীর্ঘদিনের৷ শশাঙ্ক মনোহর আইসিসি চেয়ারম্যান নিযুক্ত হওয়ার পর থেকে সেই টানাপোড়েন কার্যত সংঘাতের রূপ নিয়েছে৷ সুপ্রিম কোর্ট নিযুক্ত সিওএ জমানায় ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড এই লড়াইয়ে কিছুটা ব্যাক ফুটে চলে গেলেও এবার সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায় বিসিসিআই সভাপতি নিযুক্ত হওয়ার পর আইসিসি’র সঙ্গে লড়াইয়ের আবহটা নতুন করে উত্তপ্ত হতে শুরু করেছে৷

দায়িত্ব নেওয়ার পরেই সৌরভ ইঙ্গিত দিয়েছেন যে, আইসিসি’র সঙ্গে হিসাবটা কড়ায় গণ্ডায় বুঝে নেবেন তিনি৷ সৌরভের স্পষ্ট মত যে, বিসিসিআই-এর যতটা গুরুত্ব ও আর্থিং লভ্যাংশ প্রাপ্য আইসিসি থেকে, সেটা মোটেও পায় না ভারতীয় বোর্ড৷ সুতরাং তাঁর প্রাথমিক কর্তব্যই হবে আইসিসি’র কাছ থেকে নিজেদের প্রাপ্য আদায় করা৷

আরও পড়ুন: প্রেসিডেন্ট পদে সৌরভ ভারতীয় ক্রিকেটেরই জয়: শাস্ত্রী

আইসিসি’র সঙ্গে এই লড়াইয়ে সৌরভকে সমর্থন করছেন প্রাক্তন বিসিসিআই সভাপতি তথা কেন্দ্রীয় মন্ত্রী অনুরাগ ঠাকুর৷ চাঁচাছোলা ভাষায় আইসিসিকে আক্রমণ শাণিয়েছেন অনুরাগ৷ তাঁর স্পষ্ট মত, বিশ্বের সব থেকে বিত্তবান ক্রিকেট বোর্ড বিসিসিআই ছাড়া আইসিসি’র প্রাসঙ্গিকতাই নেই৷ তার কারণটাও জানিয়েছেন অনুরাগ৷

আইসিসি প্রসঙ্গে অনুরাগ বলেন, ‘বিসিসিআই ছাড়া আইসিসি অপ্রাসঙ্গিক৷ কেননা আইসিসির কাজকর্ম চালানোর জন্য প্রয়োজনীয় অর্থের ৭৫ শতাংশ জোগান দেয় বিসিসিআই৷’

আরও পড়ুন: ক্রিকেটাররাও ভালো প্রশাসক হতে পারে সেটা প্রমাণ করতে চাই: সৌরভ

বিসিসিআই-এর আভ্যন্তরীণ সমস্যার সুযোগ নিয়ে আইসিসি’র লভ্যাংশ বণ্টনে দীর্ঘদিন ধরে চলে আসা বিগ থ্রি ফর্মুলা নস্যাৎ করেছেন শশাঙ্ক মনোহর৷ ভারতীয় বোর্ড সেই সময় জোরালো প্রতিবাদ করতে পারেনি৷ সম্প্রতি ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডকে ছাড়াই আইসিসি তাদের নতুন ওয়ার্কিং গ্রুপ গঠন করেছে৷ ভারতীয় বোর্ডের আপত্তি সত্ত্বেও আইসিসি ইভেন্ট বাড়ানোর সিদ্ধান্তও নিয়েছে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট সংস্থা৷ এখনও পর্যন্ত বিসিসিআই-এর তরফে পালটা লড়াই চোখে পড়লেও ক্রিকেটবিশ্ব অপেক্ষা করছে সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়ের ভবিষ্যৎ পদক্ষেপের জন্য৷