মুম্বই: ২০২০ টি-২০ বিশ্বকাপ স্থগিতের সঙ্গে সঙ্গে উজ্জ্বল হল চলতি বছর আইপিএল আয়োজনের সম্ভাবনা৷ বিশ্বকাপ নিয়ে আইসিসি সিদ্ধান্ত না-নেওয়া পর্যন্ত আইপিএল নিয়ে চূড়ান্ত নিতে পারেনি বিসিসিআই৷ কিন্তু সোমবার আইসিসি চলতি বছর অস্ট্রেলিয়ার মাটিতে হতে চলা টি-২০ বিশ্বকাপ স্থগিত রাখার সিদ্ধান্ত নেওয়ায় আইপিএল নিয়ে রূপরেখা ঠিক করতে মাঠে নেমে পড়ল বিসিসিআই৷

সোমবার আইসিসি-র বোর্ড মিটিংয়ে অক্টবোরে অস্ট্রেলিয়ার মাটিতে হতে চলা টি-২০ বিশ্বকাপ স্থগিত রাখার সিদ্ধান্ত ঘোষণা করে বিশ্ব ক্রিকেটের সর্বোচ্চ নিয়ামক সংস্থা৷ আইসিসি-র প্রধান নির্বাহী মনু সাওয়নি বলেন, ‘আমরা এক কঠিন পরিস্থিতির মধ্যে দিয়ে যাচ্ছি৷ এই প্রক্রিয়াটির মধ্য দিয়ে আমাদের খেলাটির সঙ্গে জড়িত প্রত্যেকের স্বাস্থ্য ও সুরক্ষা রক্ষা করা আমাদের অগ্রাধিকার। আইসিসি মেনস টি-২০ বিশ্বকাপ পিছিয়ে দেওয়ার সিদ্ধান্তটি আমাদের কাছে উপলভ্য সমস্ত বিকল্পের যত্ন সহকারে বিবেচনা করার পরে নেওয়া হয়েছে৷ আমরা বিশ্বজুড়ে ভক্তদের সামনে দু’টি নিরাপদ ও সফল টি-২০ বিশ্বকাপ দেখার সেরা সুযোগ দিতে চায়।’

সম্ভাবনা ছিলই, শেষ পর্যন্ত তাতে সিলমোহর দিল আইসিসি৷ মাস দু’য়েক ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার তরফে জানিয়ে দেওয়া হয়েছিল করোনাভাইরাস অতিমহামারী পরিস্থিতে টি-২০ বিশ্বকাপ আয়োজন কার্যত অসম্ভব৷ তবুও বিশ্বকাপ নিয়ে সিদ্ধান্ত নিতে টালবাহানা করছিল আইসিসি৷ কিন্তু অবশেষ সোমবার চলতি বছর অর্থাৎ ২০২০ টি-২০ বিশ্বকাপ স্থগিত রাখার কথা ঘোষণা করেন আইসিসি৷

১৬ দলের এই টুর্নামেন্ট হওয়ার কথা ছিল অস্ট্রেলিয়ার মাটিতে ১৮ অক্টোবর থেকে ১৫ নভেম্বর পর্যন্ত৷ কিন্তু অস্ট্রেলিয়ার ভিক্টোরিয়া রাজ্যে কোভিড-১৯ প্রকোপের কারণে অনেক আগেই এই টুর্নামেন্ট আয়োজন করা সম্ভব নয় বলে জানিয়েছিল ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া৷

আর এতেই ভাগ্য খুলতে চলেছে আইপিএলের৷ সব কিছু ঠিক থাকলে সেপ্টেম্বরে ২০২০ আইপিএল হতে পারে দুবাইয়ে৷ শুক্রবারই টেলি কনফারেন্সের মাধ্যমে বোর্ডের অ্যাপেক্স কাউন্সিলের বৈঠকে তেমনই ইঙ্গিত পাওয়া গিয়েছে৷ তবে কাটছাঁট করে আইপিএল হতে পারে ৫ থেকে ৬ সপ্তাহের টুর্নামেন্ট৷

আইপিএল ২০২০ অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ছিল ২৯ মার্চ থেকে ১৭ মে পর্যন্ত৷ কিন্তু করোনাভাইরাস নামক অতিমহামারীর কারণে বিসিসিআই আইপিএল অনির্দিষ্টকালের জন্য স্থগিত করে দেয়৷ তবে সম্প্রতি বিসিসিআই প্রেসিডেন্ট সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায় এক সাক্ষাৎকারে জানান, আইপিএল আয়োজন করাই বোর্ডের অগ্রাধিকার৷ করোনার কারণে আইপিএল না-হলে ৪০০০ কোটি টাকা লোকসান হবে৷

ইঙ্গিত পেয়েই আইপিএল আয়োজনের প্রস্তুতি নিতে শুরু করে দিল দুবাই ক্রিকেট সংস্থা। দুবাই স্পোর্টস সিটির মধ্যেই দুবাই আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়াম খেলাগুলি হতে পারে৷ এখানে আইসিসি-র অ্যাকাডেমিও রয়েছে। দুবাই স্পোর্টস সিটির প্রধান সালমান হানিফ জানিয়ে দিলেন, তারা আইপিএল আয়োজনের সমস্ত পরিকল্পনা তৈরি রাখছে। গলফ নিউজ-কে দেওয়া সাক্ষাৎকারে তিনি বলেন, ‘স্টেডিয়ামে ন’টা পিচ রয়েছে। অল্প সময়ের মধ্যে যা অনেক ম্যাচ আয়োজন করতে পারা যাবে। পিচ যাতে ঠিক থাকে, সেইজন্য আপাতত আর কোনও ম্যাচ এখানে খেলা হবে না।’

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

করোনা পরিস্থিতির জন্য থিয়েটার জগতের অবস্থা কঠিন। আগামীর জন্য পরিকল্পনাটাই বা কী? জানাবেন মাসুম রেজা ও তূর্ণা দাশ।