ইসলামাবাদ: যুদ্ধের দামামা৷ একে অন্যের বিরুদ্ধে আক্রমনাত্মক ভারত পাকিস্তান৷ প্রতিবেশী পাকিস্তান সেনার হাতে বন্দি ভারতীয় বিমানচালক উইং কমান্ডার অভিনন্দন৷ এই পরিস্থিতিতে পাকিস্তানের আচরণের কড়া নিন্দা করল বিদেশমন্ত্রক। নয়াদিল্লির বার্তা, আন্তর্জাতিক নিয়ম লঙ্ঘন করেছে পাকিস্তান৷ নয়াদিল্লির দাবি উড়িয়ে দিয়েছে ইসলামাবাদ৷ পাক বিদেশমন্ত্রী শাহ মহম্মদ কুরেশির ঘোষণা, ভারতের দাবি মেনে অভিনন্দনকে ছেড় দেওয়া সম্ভব তখনই যখন এই দুই দেশের মধ্যে উত্তেজনা কমবে৷ তবে সূত্রের খবর, আন্তর্জাতিক চাপের কাছে নতি স্বীকার করে দ্রুত ছেড়ে দেওয়া হবে ভারতীয় বিমান চালক অভিনন্দনকে৷

আরও পড়ুন: জঙ্গিদের অর্থে যোগান দেওয়ার পথ বন্ধ করুক পাকিস্তান, কড়া বার্তা আমেরিকার

পুলওয়ামাকাণ্ডের পর পাকিস্তানকে বিশ্ব আঙিনায় এক ঘরে করতে উদ্যোগী ভারত৷ কেড়ে নেওয়া হয়েচে হয়েছে নয়াদিল্লির দেওয়া পাকিস্তানের মোস্ট ফেভার্ড নেশনের তকমা৷ সালামাবাদ দিয়ে পণ্য আমদানি রফতানিও বন্ধ করে দেওয়া হয়৷ এরপর এয়ার স্ট্রাইক৷ পালটা পাক বাহিনীর হানা৷ ভারতীয় বিমানচালক উইং কমান্ডার অভিনন্দনকে আটকে রাখা৷ সবমিলিয়ে পরিস্থিতি আরও ভয়ঙ্কয়৷

আরও পড়ুন: শান্তির কথা বলে পিছু-আক্রমণে অভ্যস্ত জিন্না থেকে ইমরানের পাকিস্তান

এই পরিস্থিতিতে ভারতের পাশে রয়েছে ওয়াশিটন৷ গতরাতেই ভারতের নিরাপত্তা উপদেষ্টা অজিত দোভালের সঙ্গে কথা হয় মার্কিন বিদেশ সচিব মাইক পম্পিওর৷ জইশ-ই-মহম্মদকে খতম করতে নয়াদিল্লির সব উদ্যোগকে সমর্থন জানিয়েছে আমেরিকা৷ এরপরই রাষ্ট্রসংঘের নিরাপত্তা পরিষদের প্রতিশ্রুতির কথা পাকিস্তানকে মনে করিয়ে দেয় ট্রাম্প প্রশাসন৷ কড়া ভাষায় জানিয়ে দিল জঙ্গিদের আশ্রয় দেওয়া বন্ধ করে নিরাপত্তা পরিষদকে দেওয়া প্রতিশ্রুতি পালন করুক ইসলামাবাদ৷ একই সঙ্গে দক্ষিণ পূর্ব এশিয়ায় শান্তি ও স্থিতাবস্থা বজায় রাখতে দুই দেশকে সামরিক কার্যকলাপে এখানেই দাঁড়ি টানতে বলেছে আমেরিকা৷

আরও পড়ুন: যুদ্ধের উস্কানি দিয়ে ফের সংঘর্ষবিরতি চুক্তি লঙ্ঘন পাকিস্তানের

এরপর বেশ ব্যকফুটে ইমরান খানের পাকিস্তান৷ আন্তর্জাতিক চাপ ক্রমাগত চেপে বসছে তাদের উপর৷ ফলে উপায় না দেখে আগেই ভারত-পাক সীমান্তে শান্তির আবেদন করেছিলেন পাক বিদেশমন্ত্রী৷ এবার তাঁর ঘোষণা শান্তি ফিরলেই ছাডা় তাদের হাতে আটক অভিনন্দনকে৷ সূত্রের খবর, দুনিয়াজুড়ে চাপ ও আন্তর্জাতিক আইন মেনেই দ্রুত ভারতীয় বায়ু সেনার উইং কমান্ডার অভিনন্দনকে মুক্তি দিতে চলেছে পাকিস্তান৷