নয়াদিল্লি : আপনিও হতে পারেন ভারতীয় বায়ুসেনার ফাইটার জেটের পাইলট৷ তার জন্য বিশেষ পরিশ্রমও করতে হবে না৷ খুব সহজে আপনিও পারবেন শত্রুদেশের সীমানায় ঢুকে জঙ্গি ঘাঁটি গুঁড়িয়ে দিতে৷ শুধু লক্ষ্য স্থির করলেই হবে৷ বুধবার ভারতীয় বায়ুসেনা প্রধান বি এস ধানোয়া লঞ্চ করলেন একটি ভিডিও গেম, যার নাম ইণ্ডিয়ান এয়ার ফোর্স: এ কাট অ্যাভাব৷

এটি একটি কমব্যাট মোবাইল গেম৷ নয়াদিল্লিতে বুধবার এটিকে জনসাধারণের জন্য নিয়ে আসা হল৷ এবার এই ভার্চুয়াল দুনিয়ায় যে কেউ হয়ে উঠতে পারবে ভারতীয় বায়ুসেনার দক্ষ পাইলট৷ এই সংক্রান্ত একটি টিজারও প্রকাশিত হয়েছিল৷ যেখানে উইং কমাণ্ডার অভিনন্দন বর্তমানের আদলে এক পাইলটকে দেখা গিয়েছিল শত্রুশিবিরে ঢুকে সব তছনছ করে দিচ্ছে৷ মিগ ২১ ফাইটার জেট নিয়ে অভিনন্দন ঢুকে পড়ছেন পাকিস্তানের মাটিতে৷ সেই নজরকাড়া গোঁফই চিনিয়ে দিচ্ছে অভিনন্দনকে৷

১৪ ফেব্রয়ারি পাকিস্তানি মদতপুষ্ট জইশ-ই-মহম্মদ জঙ্গির আত্মঘাতী হামলাতে কাশ্মীরের পুলওয়ামা সেক্টরে প্রাণ হারান ৪০ জন সিআরপিএফ জওয়ান। ১২ দিনের মাথায় এই ঘটনার যোগ্য জবাব দিয়ে পাকিস্তানের বালাকোট সেক্টরে এয়ার স্ট্রাইক করে জইশ-ই-মহম্মদের জঙ্গি ঘাঁটি গুড়িয়ে দেয় ভারতীয় বায়ু সেনা। পরের দিন ভারতের নৌসেরা সেক্টরে ঢোকার চেষ্টা করে পাক বায়ু সেনার বিমান।

নৌসেরা সেক্টরে ঢুকে পড়া পাকিস্তানি বায়ুসেনার এফ১৬ বিমানকে তাড়া করে ধ্বংস করে ভারতের বায়ুসেনা৷ পাকিস্তানের বায়ুসেনার কয়েকটি এফ১৬ বিমান ভারতের নৌসেরা সেক্টরে ঢোকে বোমা ফেলার চেষ্টা করে৷ ভারতের দু’টি মিগ-২১ যুদ্ধবিমান পাকিস্তানি এফ১৬-কে তাড়া করে৷

পাকিস্তানের একটি এফ১৬ বিমানকে ধ্বংস করে দিলেও পরে একটি মিগ২১ ভেঙে পড়ে পাকিস্তানের সাত কিলোমিটার ভেতরে৷ পাকিস্তানের হাতে বন্দি হন ভারতের এক উইং কমান্ডার অভিনন্দন৷ পাকিস্তানের সংবাদমাধ্যম সহ সাধারণের টুইটারে এরপর একাধিক ভিডিও এবং ছবি পোস্ট হতে থাকে৷ যেখানে দেখা যায় অভিনন্দনকে মারধোর করা হচ্ছে, তার গাল বেয়ে রক্ত পড়ছে৷

কিন্তু তা সত্ত্বেও তিনি দেশের বিরুদ্ধে কোন তথ্য দিচ্ছেন না পাক আর্মি অফিসারদের। এরপর তিনদিনের মাথায় আর্ন্তজাতিক ভিয়েনা চুক্তির নিয়ম মেনে অভিনন্দনকে ভারতের হাতে তুলে দেয় পাকিস্তান।

সেই অপারেশন নিয়েই মূলত তৈরি করা হয়েছে এই ভিডিও গেম৷ যেখানে দেশের যুবসম্প্রদায়ের মধ্যে ভারতীয় বায়ুসেনা সম্পর্কে সচেতনতা তৈরির জন্য গেমটি লঞ্চ করা হয়েছে৷ এই ভিডিও গেমের মাধ্যমে যুবকরা উদ্বুদ্ধ হয়ে ভারতীয় বায়ুসেনায় যোগ দিতে পারেন, এই আশাও করা হচ্ছে৷

ভিডিওতে দেখা গিয়েছে, সুখোই ও হেলিকপ্টার কীভাবে অপারেশন চালাচ্ছে শত্রুঘাঁটিতে৷ অ্যাণ্ড্রয়েড ও অ্যাপেল উভয় মোবাইলেই এই গেম পাওয়া যাবে৷ প্রাথমিকভাবে একজনই এই গেমে অংশ নিতে পারবে৷ পরবর্তী স্টেজগুলিতে একাধিক প্লেয়ার অংশ নিতে পারবে ভিডিও গেমটিতে৷