ম্যাঞ্চেস্টার: পাকিস্তানি ক্রিকেটাররা জানেন, টুর্নামেন্টের পারফরম্যান্স যাই হোক না কেন, ভারতকে হারাতে পারলে সাত খুন মাফ৷ পাক ক্রিকেটাররা এটাও জানেন যে, ভারতের কাছে হারলে চ্যাম্পিয়ন হয়ে দেশে ফিরলেও সমর্থকদের ক্ষোভের মুখে পড়তে হতে পারে তাঁদের৷

গত চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির ফাইনালে ভারতকে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন হওয়ার দেশে ফিরে নায়কের সম্মান পেয়েছিলেন সরফরাজরা৷ তবে উল্টো অভিজ্ঞতাও নেহাৎ কম হয়নি তাঁদের৷ অতীতে বহুবার ভারতের কাছে ম্যাচ হেরে দেশে ফিরে সমর্থকদের বিক্ষোভের সম্মুখীন হতে হয়েছে পাকিস্তান দলকে৷ হামলা চলেছে ক্রিকেটারদের বাড়িতেও৷

শুধু পাকিস্তানি ক্রিকেটারদেরই নয়, অতীতে এমন অভিজ্ঞতা হয়েছিল ভারতীয় ক্রিকেট দলেরও৷ ২০০৭ বিশ্বকাপে বাংলাদেশের কাছে হারার পর বেশ কয়েকজন ভারতীয় ক্রিকেটারের বাড়িটে ঢিল পড়েছিল৷ যদিও পরিস্থিতি ততটা অপ্রীতিকর পর্যায়ে কখনই পৌঁছয়নি৷

তেমন অভজ্ঞতা থেকেই বিদেশে ভারতের কাছে হেরে পাকিস্তানি ক্রিকেটারদের লন্ডন অথবা দুবাইয়ে বেশ কিছুদিন কাটিয়ে একে একে দেশে ফিরতে দেখা গিয়েছে৷ এবারও সেরকম কিছু ঘটতে পারে বলে আশঙ্কা করছে পাকিস্তান দল৷ ম্যাঞ্চেস্টারে ভারতের কাছে লজ্জাজনক হারের পর সতীর্থদের সেকথাই স্মরণ করিয়ে দিয়েছেন অধিনায়ক সরফরাজ আহমেদ৷ পাক ক্যাপ্টেন সতীর্থদের সতর্ক করেছেন এই বলে যে, তারা যেন মনে না করে ক্যাপ্টেন একা দেশে ফিরবেন৷ বরং তাদের সবাইকেই ফিরতে হবে পাকিস্তানে৷

পাক সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত খবর অনুযায়ী ভারতের কাছে হারের পর পাকিস্তানি ক্রিকেটারদের উদ্দেশ্যে হুঁশিয়ারি বার্তায় সরফরাজ বলেন, ‘ভেবো না আমি একা দেশে ফিরব৷ সবাইকেই কিন্তু দেশে ফিরতে হবে৷ ঈশ্বর না করুন টুর্নামেন্টে যদি আরও খারাপ কিছু ঘটে, তবে সমর্থকরা ছেড়ে কথা বলবে না৷’

সতীর্থদের সতর্ক করে পাক ক্যাপ্টেন বলেন টুর্নামেন্টের বাকি ম্যাচগুলিতে নিজেদের সেরাটা দিয়ে দলের পারফরম্যান্সকে উপরের দিকে তুলে নিয়ে যেতে হবে৷ এখনও মাথা উঁচু করে দেশে ফেরার সুযোগ রয়েছে তাঁদের কাছে৷’
এমন খবরও শোনা যাচ্ছে য, টিম মিটিংয়ে সরফরাজ যখন এমন হুঁশিয়ারি দিচ্ছিলেন ক্রিকেটারদের, তখন দলের দুই সিনিয়র তারকা মহম্মদ হাফিজ ও শোয়েব মালিক মাথা নীচু করে দাঁড়িয়ে ছিলেন৷ টিম মিটিংয়ে একটিও কথা বলেননি তাঁরা৷

ভারতের কাছে হারের পর পাকিস্তানি সমর্থকদের মধ্যে ইতিমধ্যেই তীব্র প্রতিক্রিয়া দেখা দিয়েছে৷ ক্রিকেটারদের মুণ্ডপাত চলছে সোশ্যাল মিডিয়ায়৷ ব্যঙ্গ বিদ্রুপের পাশাপাশি সরফরাজদের উদ্দেশ্যে গালিগালাজও চলছে বিস্তর৷