মুম্বই: করোনা যাতে না ছড়ায় তার জন্য দেশজুড়ে এখন লকডাউন চলছে। অনেক সংস্থার কর্মীরাই এখন অফিসের কাজ সারছেন বাড়ি থেকে। এর ফলে কাজের সময় অফিসের মত ফরমাল ড্রেসে অনেকেই থাকছেন না বরং লুঙ্গি পাজামার মতো বাড়ির পোষাক পড়ে অনেকেই কাজ করছেন। বাড়ি থেকে কাজ করার এটাকে সুবিধা বলে মনে করছেন শিল্পপতি আনন্দ মহিন্দ্র। তিনিও যে এর ব্যতিক্রম নয় সে কথা জানিয়েছেন।

কারণ তিনি ভিডিও কনফারেন্সিংয়ের মাধ্যমে যখন সংস্থার অন্যান্য কর্তাদের সঙ্গে বৈঠক করেন সেই সময় লুঙ্গি পড়ে ছিলেন বলে জানিয়েছেন। বাড়ি থেকে অফিস করা নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় বেশ কিছু ছবি প্রকাশ্য এসেছে । সেই রকম একটি ছবি মজা করে শেয়ার করার পাশাপাশি টুইট করে আনন্দ মহিন্দ্র জানিয়েছেন, বাড়ি থেকে কাজ করার সময় বিশেষত ভিডিও কল মারফত মিটিং করার সময় তিনি নাকি মাঝেমাঝেই লুঙ্গি পড়ে থাকছেন।

তিনি লিখেছেন, শার্টের তলায় লুঙ্গি পড়ে বসে ভিডিও কলে মিটিং ছাড়ছেন। উঠে দাঁড়াতে হচ্ছে না বলে অন্য প্রান্তে থাকা লোকেরা তার লুঙ্গি পরা বুঝতে পারছে না। এই কথা বলার পর মজা করে তার মন্তব্য, এবার হয়তো তা দেখার জন্য সহকর্মীরা তাকে‌ উঠে দাঁড়াতে বলতে পারেন। করোনা ভাইরাস যখন গোটা বিশ্ব তথা এদেশকে গ্রাস করছে তখন শুধুমাত্র মজার মজার ছবি বা মন্তব্য করেই ব্যস্ত থাকছেন এই শিল্পপতি তা নয়।

এই কঠিন সংকটে তিনি এবং তার শিল্পগোষ্ঠী এগিয়ে এসেছে নানাভাবে সাহায্য করতে। যেমন তাদের কারখানায় উৎপাদনের জায়গায় ভেন্টিলেটর বানানোর উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। এই শিল্প গোষ্ঠীর বিলাসবহুল রিসোর্ট গুলিকে আপাতত কোয়ারেন্টাইন সেন্টার করার জন্য ছেড়ে দেওয়া হয়েছে। আবার এই লক ডাউনে চরম সংকটে পড়া প্রান্তিক মানুষদের কথা ভেবে কয়েকটি কিচেন গড়ে খাবার বিতরণের ব্যবস্থা করা হয়েছে।