মুম্বই: দেশের ধনীতম পরিবারকে নোটিশ দিয়েছে আয়কর দফতর। মুকেশ অম্বানির পরিবার কালো টাকা সংক্রান্ত আইনের ভিত্তিতে সেই নোটিশ পেয়েছে। নোটিশ পেয়েছেন মুকেশের স্ত্রী নীতা অম্বানি ও তাঁদের তিন সন্তান। সম্প্রতি এক রিপোর্টে এমনটাই দাবি করা হয়েছে। যদিও সেই দাবি উড়িয়ে দিয়েছে অম্বানি পরিবার।

‘ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস’-এ প্রকাশিত একটি রিপোর্ট বলছে, হিসেব বহির্ভূত বিদেশি আয় ও সম্পত্তির অভিযোগ উঠেছে রিলায়েন্স কর্ণধার মুকেশ আম্বানির পরিবারের বিরুদ্ধে। তদন্তে নেমে অম্বানি পরিবারের সদস্যদের নোটিশ পাঠিয়েছে আয়কর দফতরের মুম্বই শাখা। বিভিন্ন দেশের নানা সংস্থা থেকে প্রাপ্ত তথ্যের ভিত্তিতে আয়কর দফতর তদন্ত করছে বলে রিপোর্ট উল্লেখ করা হয়েছে। এরপরই ২০১৫ সালের কালো টাকা আইন অনুসারে এই নোটিশ পাঠানো হয়।

চলতি বছরের ২৮ মার্চ এই নোটিশ অম্বানি পরিবারের সদস্যদের পাঠানো হয়েছে বলে দাবি করা হয়েছে।

জেনিভার এইচএসবিসি-তে প্রায় ৭০০ ভারতীয় ব্য়ক্তি বা তাদের সঙ্গে যুক্ত রয়েছে এমন অ্যাকাউন্টের বিস্তারিত নথি ২০১১ সালে ভারত সরকারের হাতে আসার পরই তদন্তে নামে আয়কর দফতর। এরপরই ২০১৫ সালে ‘সুইশ লিকস’ এ তদন্ত শুরু হয়। তল্লাশিতে জানা যায়, জেনিভার এইচএসবিসি-তে অ্যাকাউন্ট হোল্ডারদের এই সংখ্যাটা ১১৯৫।

রিলায়েন্সের এক মুখপাত্র বলেন, “যাবতীয় বিষয় আমরা অস্বীকার করছি এমনকি নোটিশের বিষয়টিও”।