কলকাতা: দর্শকশূন্য ফাঁকা গ্যালারিতে ডার্বি করার পক্ষপাতী কোনওভাবেই ছিলেন না ইস্টবেঙ্গল কর্তারা। অন্যদিকে ফাঁকা গ্যালারিতে হলেও রবিবার ডার্বি খেলা নিয়ে নাছোড় ছিলেন মোহনবাগান কর্তারা। এ নিয়ে শুক্রবার নবান্নে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দোপাধ্যায়ের সঙ্গে আলোচনা সভাতেও চলে দু’পক্ষের মধ্যে তরজা। তবে এআইএফএফ চূড়ান্ত কী সিদ্ধান্ত নেয়, সেদিকেই তাকিয়ে ছিল দু’প্রধান।

শনিবার ভারতীয় ফুটবল ফেডারেশনের নয়া নির্দেশিকা অনুযায়ী রবিবার অনুষ্ঠিত হচ্ছে না আই লিগের ফিরতি কলকাতা ডার্বি। অর্থাৎ, আগামীকাল অর্থাৎ ১৫ ডিসেম্বর যুবভারতী ক্রীড়াঙ্গনে কলকাতার দু’প্রধান মুখোমুখি হওয়ার কথা থাকলেও সেটা আপাতত পিছিয়ে যাচ্ছে। শুধু ডার্বিই নয়, ১৫ থেকে ৩১ মার্চ অবধি বন্ধ থাকছে আই লিগের সমস্ত খেলা। পাশাপাশি বন্ধ থাকছে ফেডারেশনের অধীনে চলতে থাকা বিভিন্ন ফুটবল লিগ।

তালিকায় রয়েছে সেকেন্ড ডিভিশন আই লিগ, গোল্ডেন বেবি লিগ ইত্যাদি। সাধারণ মানুষের স্বাস্থ্য নিয়ে এআইএফএফ কোনরকম আপোস করতে রাজি নয়। ৩১ মার্চ পর্যন্ত আই লিগ স্থগিত প্রসঙ্গে জানানো হয়েছে ফেডারেশনের তরফ থেকে। এরপর পরিস্থিতি কোনদিকে বাঁক নেয় সেটা বিবেচনা করে চলতি মাসের শেষদিকে ডার্বির পরিবর্তিত দিন এবং একইসঙ্গে আই লিগের বাকি ম্যাচগুলির রিভাইসড সূচি ঘোষণা করবে ভারতের ফুটবল ফেডারেশন।

তবে ডার্বি সহ আই লিগের বাকি ম্যাচ স্থগিত হলেও কিছুক্ষণের মধ্যেই আইএসএল ফাইনালে মুখোমুখি হতে চলেছে এটিকে বনাম চেন্নাইয়িন এফসি। এই ম্যাচ নিয়ে আগেই সিদ্ধান্ত হয়ে যাওয়ায় পূর্ব নির্ধারিত সূচি অনুযায়ীই অনুষ্ঠিত হতে চলেছে আইএসএল ফাইনাল। তবে কেন্দ্রীয় ক্রীড়ামন্ত্রকের নির্দেশমতো ম্যাচ অনুষ্ঠিত হতে চলেছে ফাঁকা গ্যালারিতে।