নয়াদিল্লি: ভারত সরকারের কাচে ঘরে ফেরার আকুতি জানিয়ে সম্প্রতি একটি ভিডিও ট্যুইটারে প্রকাশ করেছেন এক ব্যক্তি৷তার নাম সূর্যবান বিশ্বকর্মা৷ একটি এজেন্সির মাধ্যমে সৌদি আরবে কাজ করতে গিয়েছিলেন তিনি৷ কিন্তু ভিডিওটিতে তিনি জানাচ্ছেন যে, বর্তমানে কোম্পানি তাকে টাকা দিচ্ছে না৷ফলে একদম নিঃস্ব অবস্থায় সৌদি আরবে রয়েছেন তিনি৷ নেই সামান্য খাবর কেনার মতো অর্থ৷ফলে ভারত সরকারের কাছে ট্যুইটারের মাধ্যমে সাহায্য প্রার্থনা করেছেন এই ব্যক্তি৷

দেড় মিনিটের ভিডিওটিতে সূর্যবান জানিয়েছেন, চার ঘন্টা ওভারটাইম ও ১৫০০ টাকার বেতনে কাজে যোগ দিয়েছিলেন তিনি৷তবে শেষ দেড় মাসে মাত্র ২৫০ টাকা বেতন পেয়েছেন তিনি৷ উপরন্তু সহ্য করতে হয়েছে অত্যাচার৷ জোটেনি অন্ন৷ইতিমধ্যে ট্যুইটারে এক মিলিয়ন লোকের দেখা হয়ে গিয়েছে সূর্যবান বিশ্বকর্মার ঘরে ফেরার আকুতি৷ সৌদি আইন অনুযায়ী তাদের মালিকদের অনুমতি ছাড়া দেশ ছাড়তে পারেন না সৌদিতে কর্মরত বিদেশীরা৷

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

করোনা পরিস্থিতির জন্য থিয়েটার জগতের অবস্থা কঠিন। আগামীর জন্য পরিকল্পনাটাই বা কী? জানাবেন মাসুম রেজা ও তূর্ণা দাশ।