নয়াদিল্লি: লণ্ডনে একটি শপিং মলে কাজ করতেন মহম্মদ নাদিমুদ্দিন৷ বিগত ছবছর ধরে তিনি ব্রিটেনেরই বাসিন্দা৷ টেসকো সুপার মার্কেটের এই ভারতীয় যুবককে গুরুতর আহত অবস্থায় পড়ে থাকতে দেখেন অন্যান্য দোকানের মালিক ও স্থানীয় বাসিন্দারা৷ সঙ্গে সঙ্গে তাঁকে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়৷

হাসপাতালের চিকিৎসকরা তাঁকে মৃত বলে ঘোষণা করেন৷ আদতে হায়দ্রাবাদের বাসিন্দা এই যুবককে অজ্ঞাতপরিচয় কোনও আততায়ী মারধর করে বলে পুলিশের প্রাথমিক অনুমান৷ তবে এখনও এই ঘটনার সঙ্গে জড়িত সন্দেহে কাউকে গ্রেফতার করা যায়নি৷

আরও পড়ুন : পিত্রোদার শিখ-দাঙ্গা মন্তব্য, কংগ্রেসকে ‘অহঙ্কারি’ বললেন মোদী

মনে করা হচ্ছে তাঁকে নির্মম ভাবে কোপানো হয়৷ সুপার মার্কেটের তলায় কার পার্কিংয়ের জায়গায় তাঁকে গুরুতর আহত অবস্থায় উদ্ধার করা হয়৷ টেমস ভ্যালি পুলিশের পক্ষ থেকে একটি খুনের মামলা দায়ের করা হয়েছে৷ তদন্তও শুরু করেছে পুলিশ৷

স্থানীয় সংবাদমাধ্যম দ্যা ডেইলি মেল টেমস ভ্যালি পুলিশ প্রধান ইয়ান হান্টারকে উদ্ধৃত করে জানিয়েছে গোটা ঘটনাটি অত্যন্ত মর্মান্তিক৷ ঘটনার পূর্ণাঙ্গ তদন্ত হবে ও অপরাধী শাস্তি পাবে৷ সিসিটিভি ফুটেজ খতিয়ে দেখা হচ্ছে৷ স্থানীয় বাসিন্দাদের ও দোকান মালিকদের জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে৷ ওই যুবকের কোনও শত্রু রয়েছে কীনা নাকি কোনও পারিবারিক বিবাদের শিকার ওই যুবক, তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে৷

এদিকে, বিচার পেতে বিদেশমন্ত্রী সুষমা স্বরাজের হস্তক্ষেপ দাবি করে আবেদন করেছেন নিহত যুবকের পরিবার৷ তাঁরা যাতে লণ্ডন যেতে পারেন, সেই ব্যবস্থা করার আবেদন জানানো হয়েছে৷