স্টাফ রিপোর্টার, মেদিনীপুর: বিজেপির হয়ে মনোনয়ন জমা দিয়েছিলেন স্ত্রীকে৷ কিন্তু সেই ভয় দেখিয়ে তুলিয়ে নেওয়ার অভিযোগ উঠেছে তৃণমূলের বিরুদ্ধে৷ তারই প্রতিবাদে আত্মহত্যার চেষ্টা করলেন স্বামী৷

শুক্রবার সকালে এমনই ঘটনা ঘটেছে পশ্চিম মেদিনীপুরের চন্দ্রকোণা থানার বীরভানপুরে৷ স্থানীয় বাসিন্দা সুজিত রায় কীটনাশক খেয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করে বলে অভিযোগ৷ আপাতত ওই ব্যক্তি ঘাটাল সুপার স্পেশালিটি হাসপাতালে মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ছেন৷

আরও পড়ুন: ছুরি নিয়ে হামলা, খুন সাত স্কুল পড়ুয়া

স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, সুজিতবাবুর স্ত্রী কৃষ্ণারানি রায় চন্দ্রকোণা-১ ব্লকের মানিককুণ্ডু গ্রাম পঞ্চায়েত থেকে বিজেপির প্রার্থী হিসেবে মনোনয়ন করেছিলেন। বিজেপির ঘাটাল লোকসভা সাংগঠনিক জেলার সম্পাদক সুশান্ত মণ্ডল জানান, বৃহস্পতিবার কৃষ্ণাদেবীর মনোনয়ন তৃণমূলের কর্মীরা ভয় দেখিয়ে তুলিয়ে নেন।

সেই ঘটনার প্রতিবাদেই কৃষ্ণাদেবীর স্বামী বিষপান করেন। অন্যদিকে, তৃণমূলের চন্দ্রকোণা-১ ব্লক সভাপতি চিত্ত পাল বলেন, ‘‘কৃষ্ণাদেবী কেন মনোনয়ন তুলেছিলেন জানা নেই। তবে তৃণমূলের পক্ষ থেকে কোনও চাপ দেওয়া হয়নি।’’

আরও পড়ুন: মোদী সরকার জিএসটি আদায় করল ৭.৪১ ট্রিলিয়ন টাকা

এদিকে চন্দ্রকোণা থানার পুলিশ জানিয়েছে, তারা সুজিতবাবুর বিষ খাওয়ার ঘটনাটি ফোন মারফত জানতে পারেন৷ এই প্রসঙ্গে কোনও অভিযোগ চন্দ্রকোণা থানায় জমা পড়েনি।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

কোনগুলো শিশু নির্যাতন এবং কিভাবে এর বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়ানো যায়। জানাচ্ছেন শিশু অধিকার বিশেষজ্ঞ সত্য গোপাল দে।