স্টাফ রিপোর্টার, তমলুক: বাপের বাড়ি থেকে টাকা আনতে না পারায় গর্ভবতী স্ত্রীকে খুনের অভিযোগ উঠল স্বামী ও শ্বশুর বাড়ির বিরুদ্ধে৷ ঘটনাটি ঘটেছে পূর্ব মেদিনীপুরের পাঁশকুড়া থানার কেশববার এলাকায়৷ মৃতার নাম ফারজানা বিবি (২০)৷

স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, বাপের বাড়ি থেকে স্ত্রীকে টাকা আনতে পাঠায় স্বামী৷ শ্বশুর বাড়ির সদস্যদের দাবি ছিল ফারজানা বিবির স্বামী দুবাই যাবে তাই ৬০ হাজার টাকা এনে দিতে হবে৷ তাঁকে বাপের বাড়িতেও পাঠায়৷ কিন্তু ফারজানা বিবি বাপের বাড়ি থেকে টাকা নিয়ে আসতে পারেনি৷ এরপর তিনি শ্বশুর বাড়ি ফিরে এলে চলে তাঁর উপর অত্যাচার৷ অবশেষে গর্ভবতী স্ত্রীকে খুন করে স্বামী ও শ্বশুর বাড়ির সদস্যরা৷

ঘটনার পর উত্তেজিত জনতা অভিযুক্তের বাড়িতে ভাঙচুর চালায়। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে এলাকায় মোতায়েন করা হয়েছে পুলিশ। পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, অভিযুক্ত স্বামীর নাম শেখ আম্মাদুল্লা। সে ও তার পরিবার ঘটনার পর থেকে পলাতক৷ তাদের খোঁজে তল্লাশি চালাচ্ছে পুলিশ৷

মৃতার বাপের বাড়ির পক্ষ থেকে অভিযুক্ত ও তার পরিবারের বিরুদ্ধে থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছে৷ অভিযোগের ভিত্তিতে পুলিশ ঘটনার তদন্তে নেমেছে৷ টাকার জন্য নিজের অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রীকে হত্যা করার নিন্দার ঝড় উঠেছে এলাকায়। মৃতদেহ ময়নাতদন্তের জন্য তমলুক জেলা হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।