ঢাকা: জাতীয় সংসদের নির্বাচনে বিপুল জয় পেয়েছে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ। আর ভোটের ফল বের হওয়ার পরেই আক্রান্ত হল সংখ্যালঘু হিন্দু পরিবার।

ঘটনার কেন্দ্র আওয়ামী লীগেরই গোষ্ঠী কোন্দল।সেই কোন্দল ঘিরে এক পক্ষের দফায় দফায় হামলায় শতাধিক মানুষ গৃহহীন। তাদের অনেকেই সংখ্যালঘু হিন্দু বলে জানা গিয়েছে। একাধিক সংবাদ মাধ্যমে এসেছে এই খবর।ফরিদপুরে প্রায় ৫০টি পরিবারের ঘর ভেঙে দেওয়া হয়েছে। আক্রান্ত হিন্দু পরিবারগুলি অন্যান্যরা জয়ী সংসদ মজিবর রহমান চৌধুরী নিক্সনের বিরোধী গোষ্ঠীর সমর্থক বলেই জানা গিয়েছে। তিনি নির্দল প্রার্থী হিসেবে লড়াই করে জিতেছেন। ফলে অস্বস্তিতে শাসক দল।

জানা গিয়েছে, ফরিদপুরে জয়ী হন নিক্সন। অভিযোগ ভোটের আগে থেকেই শুরু হয়েছিল বিক্ষিপ্ত হামলা। আর জয়ের খবর আসতেই তাঁর সমর্থকরা ফরিদপুর-৪ নির্বাচনী এলাকার ভাঙ্গা ও সদরপুর উপজেলার কয়েকটি এলাকায় হামলা চালায়। সেই রোষ গিয়ে পড়ে দলেরই আওয়ামী লীগেরই অপর নেতা তথা পরাজিত প্রার্থী কাজী জাফরউল্যাহর সমর্থকদের উপরে।

বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যমে এসেছে এই বিষয়টি। নিরাপত্তার প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে। তবে তদন্তে নেমে পুলিশ গ্রেফতার করেছে কয়েকজনকে। এলাকাবাসী আতঙ্কিত। বিজিবি ও সেনাবাহিনী মোতায়েন করা হয়েছে।

কাজী জাফরউল্যাহর সমর্থকরা জানিয়েছেন, নৌকায় ভোট দিয়ে তাদের মার খেতে হচ্ছে। নৌকায় ভোট দেওয়াই যেন তাদের অপরাধ। আর নির্দল প্রার্থী তথা জয়ী সাংসদ নিক্সনের সমর্থকরা জানিয়েছেন, সাংসদের ভাবমূর্তি বিনষ্ট করার চেষ্টা চলছে।