স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা: ১৯ মে আসছে দিন, হাতে জলের বোতল , মাথায় ছাতা আর গলদঘর্ম অবস্থায় ভোট দিন। এটাই হটে পারে নির্বাচন কমিশনের ভোট দান করার জন্য প্রচার। সৌজন্যে আলিপুর আবহাওয়া দফতরের প্রকট অস্বস্তিকর গরমের পূর্বাভাস। ‘দিন বদলের’ কোনও সম্ভাবনাই নেই উলটে তাপমাত্রা এবং গরম দুই মারাত্মক ভাবে ফের বেড়ে যাবে বলে জানাচ্ছেন আবহবিদরা।

গত কয়েকদিন বৃষ্টির জেরে তাপমাত্রা নিয়ন্ত্রণে ছিল। বৃষ্টি সম্ভাবনা নেই ফলে ফের ধীরে ধীরে চড়ছে পারদ। আগামী ২৪ ঘণ্টায় অর্থাৎ ১৯ তারিখ শেষ দফা ভোটের দিন শহরের তাপমাত্রা পৌঁছতে পারে ৩৮-এর ঘরে।

শনিবারের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ৩৬.৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস যা স্বাভাবিকের থেকে এক ডিগ্রি বেশি। সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ২৯.৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস, যা স্বাভাবিকের থেকে দুই ডিগ্রি বেশি। আর্দ্রতার পরিমাণ সর্বোচ্চ ৯১শতাংশ, সর্বনিম্ন ৬৩ শতাংশ।

শুক্রবারের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ৩৬.৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস যা স্বাভাবিকের থেকে এক ডিগ্রি বেশি। সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ২৮.৭ডিগ্রি সেলসিয়াস, যা স্বাভাবিকের থেকে দুই ডিগ্রি বেশি। আর্দ্রতার পরিমাণ সর্বোচ্চ ৯১শতাংশ, সর্বনিম্ন ৫৮শতাংশ। বৃহস্পতিবারের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল ৩৬.১ ডিগ্রি সেলসিয়াস যা স্বাভাবিকের থেকে এক ডিগ্রি বেশি। সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ২৬.৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস, যা স্বাভাবিক। আর্দ্রতার পরিমাণ সর্বোচ্চ ৮৮ শতাংশ, সর্বনিম্ন ৪৪ শতাংশ।

বুধবারের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল ৩৫.৭ ডিগ্রি সেলসিয়াস যা স্বাভাবিকের থেকে এক ডিগ্রি বেশি। মঙ্গলবার সন্ধ্যায় হালকা বৃষ্টি এবং ঠান্ডা হাওয়ায় তাপমাত্রার পরিবর্তন ঘটে। সর্বনিম্ন তাপমাত্রা কম ছিল। বৃষ্টির দেখা নেই তাই ফের চড়ছে পারদ।

মঙ্গলবারের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল ৩৬.২ ডিগ্রি সেলসিয়াস যা স্বাভাবিকের থেকে এক ডিগ্রি বেশি। সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ২৩.৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস, যা স্বাভাবিকের থেকে তিন ডিগ্রি কম। সোমবার রাতে কলকাতায় বৃষ্টি হয়েছিল ১০.৩ মিলিমিটার। আর্দ্রতার পরিমাণ সর্বোচ্চ ৯৪ শতাংশ সর্বনিম্ন ৫৪ শতাংশ।