সিডনি: গত কয়েকদিন ধরেই জ্বলছে অস্ট্রেলিয়া। এবার সংকটের মুখে সেদেশের মানুষ। পশু-পাখী প্রত্যেকেরই প্রাণ সংশণ তৈরি হয়েছে। বিশেষত প্রত্যন্ত অঞ্চলে মানুষের বেঁচে ধাকার রসদ টুকুই মিলছে না।

শতাধিক জায়গায় এখনও জ্বলছে আগুন। অনেক জায়গাতেই আগুন এখনও নিয়ন্ত্রণের বাইরে। কয়েক লক্ষ একর জমি নষ্ট হয়ে গিয়েছে। ধ্বংস হয়েছে অন্তত ১২০০ বাড়িল তাপমাত্রা প্রায় ৪৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস ছুঁতে চলেছে।

বেশ কিছু অঞ্চলে জলের অভাব তৈরি হয়েছে। নেই খাবার, নেই জ্বালানি। ত্রাণ নিয়ে ইতিমধ্যেই একটি নেভি শিপ রওনা দিয়েছে।

এখনও পর্যন্ত তিনজনের মৃত্যু হয়েছে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। মানুষ স্বাভাবিকভাবে নিশ্বাস নিতে পারছেন না সেখানে। দোকানেও আশ্রয় নিয়েছেন অনেকে। কয়েক সপ্তাহ ধরে দাবানলে পুড়ছে অস্ট্রেলিয়ার একাংশ। ১ কোটি একর জমি ধ্বং স হয়ে গিয়েছে আগুনে।

দমকা হাওয়ায় হু হু করে ছড়িয়ে পড়ছে আগুন। আর তার জেরেই আটকে পড়েছে বহু মানুষ। বাড়ি ছেড়ে সমুদ্র সৈকতে আশ্রয় নিতে হয়েছে মানুষজনকে। ৪০০০ মানুষ ঘর ছাড়তে বাধ্য হয়েছেন। শহর জুড়ে এমার্জেন্সি সাইরেন বাজানো হচ্ছে ভোর থেকেই।

প্রশাসনের ক্রমাগত প্রচেষ্টা সত্ত্বেও দাবানল নিয়ন্ত্রণে আসার বদলে বেড়েই চলেছে। হাওয়ার দাপট এতটাই বেশি, উল্টে যাচ্ছে ট্রাক। আর তাতেই প্রাণ হারিয়েছেন এক দমকলকর্মী।

অস্ট্রেলিয়ার চারটি প্রদেশে দাবানলের ধ্বংসলীলা সবচেয়ে বেশি। তার মধ্যে অন্যতম ভিক্টোরিয়া। সেখানে প্রবল হাওয়ায় আগুন দ্রুত ছড়াচ্ছে বলে পর্যটক ও স্থানীয়দের অন্যত্র সরানোর নির্দেশ জারি হয়েছে। ভিক্টোরিয়ার সীমান্তবর্তী আলবারিতেই সোমবার ঘটে দুর্ঘটনা। সেখানে আগুন নেভানোর কাজে গিয়েছিলেন নিউ সাউথ ওয়েলসের ‘রুরাল ফায়ার সার্ভিসে’র কর্মীরা। প্রবল হাওয়ায় তাঁদের দু’টি ট্রাক ধাক্কা খায়, মৃত্যু হয় ট্রাকে থাকা এক দমকলকর্মীর। অন্য দুই দমকলকর্মী আংশিক দগ্ধ হয়েছেন।

চলতি বছরে অস্ট্রেলিয়ার দাবানল ইতিমধ্যেই ১০ জনের প্রাণ কেড়েছে। ভস্মীভূত বিস্তীর্ণ বনভূমি। মঙ্গলবার থেকে পরিস্থিতি আরও খারাপ হওয়ার আশঙ্কা। সোমবারই অস্ট্রেলিয়ার অধিকাংশ প্রদেশের তাপমাত্রা ৪০ ডিগ্রি সেলসিয়াস ছাড়িয়ে গিয়েছিল। এত গরম ডিসেম্বর এর আগে দেখেনি অস্ট্রেলিয়া।

অস্ট্রেলিয়ার চারটি প্রদেশে দাবানলের ধ্বংসলীলা সবচেয়ে বেশি। তার মধ্যে অন্যতম ভিক্টোরিয়া। সেখানে প্রবল হাওয়ায় আগুন দ্রুত ছড়াচ্ছে বলে পর্যটক ও স্থানীয়দের অন্যত্র সরানোর নির্দেশ জারি হয়েছে। ভিক্টোরিয়ার সীমান্তবর্তী আলবারিতেই ঘটে দুর্ঘটনা। সেখানে আগুন নেভানোর কাজে গিয়েছিলেন নিউ সাউথ ওয়েলসের ‘রুরাল ফায়ার সার্ভিসে’র কর্মীরা। প্রবল হাওয়ায় তাঁদের দু’টি ট্রাক ধাক্কা খায়, মৃত্যু হয় ট্রাকে থাকা এক দমকলকর্মীর। অন্য দুই দমকলকর্মী আংশিক দগ্ধ হয়েছেন।

চলতি বছরে অস্ট্রেলিয়ার দাবানল ইতিমধ্যেই ১০ জনের প্রাণ কেড়েছে। ভস্মীভূত বিস্তীর্ণ বনভূমি। মঙ্গলবার থেকে পরিস্থিতি আরও খারাপ হওয়ার আশঙ্কা। সোমবারই অস্ট্রেলিয়ার অধিকাংশ প্রদেশের তাপমাত্রা ৪০ ডিগ্রি সেলসিয়াস ছাড়িয়ে গিয়েছিল। এত গরম ডিসেম্বর এর আগে দেখেনি অস্ট্রেলিয়া।