নয়াদিল্লি: একদিনে ভারত বায়োটেক ‘কোভ্যাক্সিন’-এর পরীক্ষা চালাচ্ছে। অন্যদিকে, ভারতেই আরও এক সম্ভাব্য টীকার মানব পরীক্ষা শুরু হচ্ছে শীঘ্রই। চলতি মাসেই শুরু হচ্ছে সেই ট্রায়াল।

দ্বিতীয় করোনা টিকা “জাইকভ-ডি”-র মানব পরীক্ষা শুরু হবে বলে জানিয়েছে এই টিকা নিয়ে গবেষণা চালানো দেশের অন্যতম বৃহত্তম ওষুধ প্রস্তুতকারী সংস্থা জাইডাস ক্যাডিলা।

দেশের বিভিন্ন প্রান্তে প্রায় এক হাজারের বেশি মানুষকে বেছে নেওয়া হবে তাদের উপর এই ভ্যাকসিন প্রয়োগ করে পরীক্ষা-নিরীক্ষা চালানোর জন্য। গত সপ্তাহে, প্রথম ও দ্বিতীয় দফা পরীক্ষা চালানোর সবুজ সঙ্কেত সংস্থাকে দিয়েছে দেশের ড্রাগ কন্ট্রোলার জেনারেল অফ ইন্ডিয়া বা ডিসিজিআই।

এই সংস্থার চেয়ারম্যান পঙ্কজ পটেল জানান, ট্রায়াল শেষ করতে তিনমাস সময় লাগবে। একবার দু-দফার পরীক্ষা শেষ হলে, তখন তৃতীয় দফা পরীক্ষার অনুমতি দেওয়া হবে। সেখানেও তিনমাসের প্রক্রিয়া। তারপর গিয়ে এই ভ্যাকসিন বাজারে আসতে পারে।

আমেদাবাদের এই সংস্থায় “জাইকভ-ডি” নামে ওই ভ্যাক্সিন তৈরি করা হয়েছে। সংস্থার দাবি, পশুদের ওপর পরীক্ষায় এই ভ্যাকসিন আশাতীত ফল দিয়েছে। ভ্যাকসিন থেকে উৎপন্ন অ্যান্টিবডি ভাইরাসকে একেবারে বাগে আনতে সক্ষম হয়েছে বলে দাবি করেছে সংস্থা। এমনকি কোনও খারাপ প্রতিক্রিয়া দেখা যায়নি বলেও জানা গিয়েছে।

জাইডাস জানিয়েছে, “জাইকভ-ডি”-র মাধ্যমে তারা সফলভাবে ডিএনএ-নির্ভর ভ্যাকসিনের প্ল্যাটফর্ম তৈরি করে ফেলেছে।

প্রসঙ্গত, চলতি সপ্তাহেই শুরু হচ্ছে দেশের প্রথম সম্ভাব্য কোভিড-১৯ ভ্যাকসিন “কোভ্যাকসিন”-এর প্রথম ও দ্বিতীয় পর্যায়ের মানব পরীক্ষা। প্রথম দফায় ৩৭৫ জন, তারপর দ্বিতীয় দফায় আরও ৭৫০ জন। সব মিলিয়ে ১১০০-এর বেশি মানুষের ওপর শুরু হতে চলেছে দেশের প্রথম করোনা টিকা কোভ্যাক্সিনের পরীক্ষার পরীক্ষা।

পপ্রশ্ন অনেক: চতুর্থ পর্ব

বর্ণ বৈষম্য নিয়ে যে প্রশ্ন, তার সমাধান কী শুধুই মাঝে মাঝে কিছু প্রতিবাদ