জয়পুর: পেটে ভীষন ব্যাথা করছে। এই কথায় বার বার করে বলছিলেন ওই ব্যক্তি। সেই অনুযায়ী শুরু হয়েছিল চিকিৎসা। ডাক্তারদের পরামর্শে প্রথমে ইউএসজি করা হয়।

সেই রিপোর্ট হাতে পেয়ে রীতিমতো চক্ষু চড়কগাছ অবস্থা ডাক্তারদের। কারণ ইউএসজি রিপোর্ট বলছে, পেটের মধ্যে রয়েছে বহু ধাতব পদার্থ। একই সঙ্গে অনেক নখ রয়েছে। সেই অবস্থাতেই বেচে রয়েছেন ৪০ বছর বয়সী লোকটি।

ইউএসজি রিপোর্ট দেখার পরে আর দেরি করেননি চিকিৎসকেরা। তড়িঘড়ি রোগীর অপারেশনের ব্যবস্থা করেন। দীর্ঘ দের ঘণ্টা ধ্রে চলে সেই অপারেশন। আর তাতেই উদ্ধার হয়েছে চাবি, ছোট ধাতব টুকরো, ছিলাম সহ নানাবিধ সামগ্রী। ডাক্তারদের দাবি অনুযায়ী, মোট ৮০টি সামগ্রী উদ্ধার করা হয়েছে। যেগুলির মোট ওজন ৮০০ গ্রাম।

ওই রোগীর অপারেশন করেছেন চিকিৎসক ডিকে শর্মা। তিনি বলেছেন, “এটি একটি বরলতম ঘটনা। রোগীর পেট থেকে ১১৬টি নখ এবং ধাতুর বালা উদ্ধার করা হয়েছে।”

অপারেশনের পরে জানা যায় যে রোগীটি মানসিক ভারসাম্যহীন। এমনই দাবি করেছেন চিকিৎসকেরা। নানাবিধ নেশায় সে আসক্ত। সেই কারণেই বিপদ বুঝেও ওই সকল ধাতব সামগ্রী সে উদরস্থ করেছিল। তবে এই মুহূর্তে আর ভয়ের কিছু নেই। তবে আরও কিছুদিন তাঁর চিকিৎসা চলবে বলে জানিয়েছেন চিকিৎসকেরা।