স্টাফ রিপোর্টার , হাওড়া : এই মাসেই খুলতে পারে হাওড়ার নবনির্মিত তারামণ্ডল। প্রায় বছর দুয়েক ধরে কাজ চলছে এই তারামণ্ডল তৈরির। মাঝে বহুদিন খবর ছিল না এই তারামণ্ডলের। অনেকেই ভেবেছিলেন পুরসভার বোর্ড ভেঙে যাওয়ায় এর আর কোনও অগ্রগতি হচ্ছে না। কিন্তু খুশির খবর হাওড়াবাসীর জন্য। জেলার সাধারণ মানুষের আকাশ দর্শনের বহু দিনের ইচ্ছা শীঘ্রই পূরণ হতে চলেছে।

উল্লেখ্য, হাওড়া পুরসভায় তৃণমূল পরিচালিত বোর্ড থাকাকালীনই তারামন্ডল তৈরির পরিকল্পনা করা হয়। তৃণমূল বোর্ডের প্রাক্তন মেয়র পারিষদ দিব্যেন্দু মুখোপাধ্যায়ের উদ্যোগে হাওড়া শরৎ সদনে তারামন্ডল তৈরির কাজ দীর্ঘদিন আগেই শুরু হয়। সেই কাজ এখন শেষের পথে। তারামন্ডলে শোয়ের জন্য বিদেশ থেকে এসে গিয়েছে প্রজেকশন মেশিনও। হাওড়ার পুর কমিশনার বিজনকৃষ্ণ বলেন, ‘জানুয়ারি মাসের মধ্যেই খুলে দেওয়া হবে তারামন্ডল। হাওড়ার শরৎ সদন চত্বরের পশ্চিম প্রান্তে নির্মীয়মাণ ৯০ আসন বিশিষ্ট এই আধুনিক তারামণ্ডলের পোশাকি নাম দেওয়া হয়েছে ‘প্ল্যানেটোরিয়াম অ্যান্ড অ্যাস্ট্রোনমিক্যাল রিসার্চ সেন্টার’। এটি তৈরিতে খরচ হয়েছে প্রায় ১৪ কোটি টাকা। বাংলা, হিন্দি ও ইংরেজি ভাষায় প্রতিদিন মোট ১০টি করে শোয়ের ব্যবস্থা থাকছে বলে পুরসভা সূত্রের খবর। প্রতিটি শোয়ের সময়সীমা হবে ২৫ মিনিট।’

শুধু বিনোদনই নয়। মহাকাশ, নিয়ে পড়ুয়াদের পড়াশোনা এবং জ্ঞানার্জনের ব্যবস্থাও এখানে থাকবে । থাকছে মনীষীদের ছবি ও কাজ নিয়ে তৈরি আর্ট গ্যালারি।হাওড়া ময়দান পর্যন্ত মেট্রো চালু হয়ে গেলে কলকাতার মানুষও ইচ্ছা করলে আসতে পারবেন এখানে। এক্ষেত্রে পর্যটনের ক্ষেত্রে নতুন জায়গা হতেই পারে হাওড়ার এই নবনির্মিত তারামণ্ডল।

কলকাতার 'গলি বয়'-এর বিশ্ব জয়ের গল্প