হাওড়া: পুরবোর্ডের মেয়াদ উত্তীর্ণ। পুরসভায় বসেছে প্রশাসক। কিন্তু পরিষেবা যাতে আরও ভালোভাবে নাগরিকদের কাছে পৌঁছে দেওয়া যায় তার জন্য হাওড়ায় গুরুত্বপূর্ণ বৈঠকে সামিল হলেন পুর এলাকার সাংসদ বিধায়করা। এই অবস্থায় শনিবার বিকেলে হাওড়া পুরসভার পরিষেবার জরুরি বৈঠক হল রাজ্যের মন্ত্রী দলের সদর সভাপতি অরূপ রায়ের উদ্যোগে। পুরসভা এলাকার সব বিধায়ক ও সংসদকে নিয়ে জরুরি বৈঠক ডাকা হয়। বৈঠক হয় হাওড়া জেলা তৃণমূল কংগ্রেস কার্যালয়ে।

সমব্যথী থেকে শুরু করে আয়ের শংসাপত্র কাউন্সিলররা আগে ওয়ার্ড অফিস থেকে দিতেন৷ এই ধরণের পুর পরিষেবা পেতে সাধারণ মানুষের কোনও অসুবিধা না হয় তা সুনিশ্চিত করেন অরূপ রায়৷ জানান, বিধায়কদের মাধ্যমে সাধারণ নাগরিকদের কাছে পৌঁছে যাবে পরিষেবা। তবে সেই কাজে সহায়তার জন্য প্রতিটি ওয়ার্ডেই দলের দায়িত্বপ্রাপ্ত ওয়ার্ড সভাপতিদের কাজে লাগানো হবে। প্রয়োজনে ওই ওয়ার্ডের যিনি এতদিন কাউন্সিলর হিসেবে দায়িত্ব সামলেছেন তিনিও এই কাজে সাহায্য করতে পারবেন। ওই এলাকায় বিধায়কের মাধ্যমেই পরিষেবা মিলবে। শনিবার বিকেলে হাওড়ার সদর তৃণমূল কংগ্রেস কার্যালয়ে এক সাংবাদিক বৈঠকে একথা জানান রাজ্যের সমবায় মন্ত্রী তথা হাওড়া জেলা সদর তৃণমূল কংগ্রেসের সভাপতি অরূপ রায়।

অরূপ রায় বলেন, ‘‘হাওড়া পুরসভা এলাকায় আমরা পাঁচ জন বিধায়ক এবং একজন সাংসদ রয়েছি৷ আমরা সকলে মিলে বৈঠকে বসেছিলাম। আজকে আমরা আলোচনা করেছি হাওড়া পুরসভায় পুর প্রশাসক বসার পরে কাউন্সিলররা আগে যে পরিষেবা দিতে পারতেন এখন সেটা দিতে পারছেন না। সেগুলি যাতে কোনোরকম অসুবিধা না হয় তার জন্যই আমরা আজকে আলোচনা করেছি। এমনিতে হাওড়া পুর এলাকায় কোনও সমস্যা নেই। পরিষেবা সকলেই পাচ্ছেন। হাওড়া পুরসভা এলাকায় পুর পরিষেবার ক্ষেত্রে কোন সমস্যা নেই। তারপরেও আরও যা অন্যান্য কোনও সমস্যা সাধারণ মানুষকে পোহাতে না হয় তার জন্যই আমরা আলোচনা করেছি। যেমন কোথাও জলের লাইন খারাপ, কোথাও পুরনো বাড়ির সমস্যা রয়েছে, কোথাও শংসাপত্র প্রয়োজন এরকম বিভিন্ন সমস্যার ক্ষেত্রে যাতে সমস্যা না হয়৷ এবং সেই সমস্ত পরিষেবা পৌঁছে দেওয়া যায় তা আলোচনা হয়েছে।’’

তিনি আরও বলেন, ‘‘ইনকাম সার্টিফিকেট, ক্যারেক্টার সার্টিফিকেট আগে যেগুলি কাউন্সিলররা দিতেন বা সমব্যথী ওয়ার্ডে ওয়ার্ডে মানুষের কাছে যাতে এইসব কিভাবে পৌঁছে দেওয়া যায় তার বিস্তারিত আলোচনা আজকে করেছি। আমরা নিজেদের মধ্যে মত বিনিময় করেছি। পরিষেবা যাতে আরও ভালোভাবে পৌঁছে দেওয়া যায় তার জন্য মন্ত্রীরা কাজ করছেন৷ এবং কাউন্সিলররা যে সমস্ত সার্টিফিকেট সাধারণ মানুষকে দিতেন সেগুলি মন্ত্রীরা এখন দেবেন। তাঁদের হয়ে কাজগুলি করবেন দলের দায়িত্ববান ওয়ার্ড সভাপতিরা।’’