স্টাফ রিপোর্টার , হাওড়া : দুই রাজমিস্ত্রিকে মারধরের ঘটনায় দুই রাজনৈতিক দলের সংঘর্ষে উত্তপ্ত হল হাওড়ার লিলুয়ার জগদীশপুর এলাকা। জখম হলেন চার পুলিশ কর্মী। জখম অবস্থায় এদের মধ্যে একজন হাওড়া জেলা হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন। ভাঙচুর করা হয়েছে পুলিশের গাড়ি। টায়ার জ্বালিয়ে অবরোধ হয় রাস্তা। ঘটনায় টোটোন দলুই, জয় দাস সহ মোট ৫ জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। এই ঘটনায় বিজেপি সহ দুটি রাজনৈতিক দলের বিরুদ্ধে অভিযোগের আঙুল তুলেছে।

ঘটনা সম্পর্কে জগদীশপুর গ্রাম পঞ্চায়েত প্রধান গোবিন্দ হাজরা জানান, শান্ত এলাকা অশান্ত করতে বিজেপি এলাকায় গন্ডোগোল পাকাচ্ছে। বিজেপি অবশ্য এই অভিযোগ অস্বীকার করেছে। বিজেপির ওই এলাকার সভাপতি সুরিজিত সাহা জানান, তৃণমূলের গোষ্ঠীদ্বন্দের জেরেই এই ঘটনা ঘটেছে।

উল্লেখ্য, বৃহস্পতিবার রাতে হাওড়ার জগদীশপুর ফাঁড়ির কাছে দেবীরপাড়ায় দাঁড়িয়ে থাকা দুই রাজমিস্ত্রিকে ধাক্কা মারে বলুরহাটি থেকে জগদীশপুরগামী একটি বাইক। বাইকে দুজন আরোহী ছিলেন। ধাক্কা মারাকে কেন্দ্র করে বাইক আরোহী এবং রাজমস্ত্রিদের সঙ্গে প্রথমে বচসা এবং পরে হাতাহাতি শুরু হয়। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে আসে লিলুয়া থানার পুলিশ। সেখান থেকে পুলিশ গ্রেফতার করে তিনজনকে। পরে একজনকে ছেড়ে দেওয়া হয়। একজনকে ছেড়ে দেওয়ায় উত্তেজিত হয়ে ওঠে এলাকার বাসিন্দারা। তাঁরা দেবীরপাড়া অবরোধ করে। পুলিশ অবরোধকারীদের তুলতে গেলে পুলিশের উপর চড়াও হয় অবরোধকারীরা। মুহুর্মুহু ইঁট ছুঁড়তে থাকেন তারা।

মারধোর করা হয় পুলিশ কর্মীদের। ভাঙচুর করা হয় পুলিশের গাড়ি। এই পরস্থিতিতে রণক্ষেত্রের চেহারা নেয় দেবীরপাড়া এলাকা। এদিন অবরোধকারীদের হামলায় গুরুতর জখম হন ভোলা শঙ্কর চৌবে নামে এক এক সিভিক ভলেন্টিয়ার্স সহ মোট ৫ জন পুলিশকর্মী। এর পাশাপাশি অবরোধকরীরা ভাঙচুর চালান বাড়ি, দোকান ঘর, স্থানীয় একটি ক্লাবেও।

জগদীশপুর গ্রাম পঞ্চায়েত প্রধান গোবিন্দ হাজরা জানিয়েছেন, তাঁদের এলাকা বরাবর শান্ত। এই শান্ত এলাকা অশান্ত করতে পথে নেমেছে বিজেপি। রাতে বিজেপির কয়েকজন মদ্যপ ছেলে গন্ডগোল পাকিয়েছে। পুলিশকে মারধর করছে। এই ব্যাপারে বিজেপি সদর জেলা সভাপতি সুরজিৎ সাহা জানিয়েছেন, ‘এটা তৃণমূল কংগ্রেসের গোষ্ঠীদ্বন্ধ। তারাই নিজেদের কর্মীদের বাড়ি ভাঙচুর করেছে। এরপর এমন ঘটনা ঘটলে তাঁরা এবার পথ নামবে বলেও জানান তিনি।’ এই ব্যাপারে হাওড়া সিটি পুলিশের এসিপি উত্তর প্রতিক্ষা ঝারখারিয়া জানিয়েছেন, ‘এই সংঘর্ষের ঘটনায় মোট ৫ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তাঁদের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের কর হয়েছে। এই ঘটনার তদন্ত শুরু হয়েছে।’