সোয়েতা ভট্টাচার্য, কলকাতা: ১৫ অগস্ট মুড়ে ফেলবে তেরঙা৷ দোল উৎসবে হলুদ-পলাশ রঙে ভাসবে ইস্পাতের কাঠামো৷ আবার সাধারণতন্ত্রে সেজে উঠবে গেরুয়া-সাদা-সবুজে৷  হ্যাঁ! গঙ্গাতীরের দুই বোন হাওড়া-কলকাতাকে একসুত্রে বেঁধে রাখা হাওড়া ব্রিজ সেজে উঠছে এমনই আলোকধারায়৷

পর্যটকদের কাছে আকর্ষণ বাড়াতে মার্কিন দেশের সান ফ্রান্সিস্কোর নিউ ইয়র্ককে নকল করেই বাংলার হাওড়া ব্রিজকেও এলইডি আলোয় সাজিয়ে তোলা হচ্ছে৷ চলতি বছরেই পচাত্তরে পা রাখা হাওড়া ব্রিজ বা রবীন্দ্র সেতুকে ঢেলে সাজাচ্ছে কলকাতা বন্দর কর্তৃপক্ষ৷

বাঙালির গর্ব, কলকাতার আইকনের প্ল্যাটিনাম জুবিলি উদযাপন করতেই এই অভিনব পরিকল্পনা করেছে কলকাতা পোর্ট ট্রাস্ট৷ রং-বেরংঙের এলইডি লাইটের মাধ্যমে বিভিন্ন উপলক্ষ্যে আলোর সজ্জায় সজ্জিত হবে হাওড়া ব্রিজ৷ বন্দর কর্তৃপক্ষ জানাচ্ছে, সব কিছু ঠিকঠাক থাকলে আগামী তিনমাসের মধ্যেই এই কাজ শুরু করা হবে৷ এই সেতুকে নয়া আলোয় সাজাতে চার থেকে পাঁচটি কোম্পানি ইতিমধ্যেই তাদের টেন্ডার জমা দিয়েছে বলে জানা গিয়েছে৷

১৯৪৩ সালে যাত্রা শুরু করে এখনকার এই রবীন্দ্র সেতুর৷ তারপর থেকে যানবাহন ও মানুষের ভার বহন করে চলেছে ঐতির্যবাহী এই সেতু৷ প্রতিদিন গড়ে এই ব্রিজের উপর দিয়ে একলক্ষ গাড়ি এবং দেড় লক্ষ পথচারি যাতায়াত করে৷ এই ব্রিজটি ১৯৬৫ সালে রবীন্দ্র সেতু বলে নতুন নামকরণ করা হয়৷ যদিও এখনও হাওড়া ব্রিজ বলেই বেশির ভাগ মানুষের কাছে পরিচিত৷

সুত্রের খবর এলএডি লাইট দিয়ে এই সেতুকে নতুন রূপ দিতে প্রায় ১৫ থেকে ১৯ কোটি টাকা খরচ হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে৷ কলকাতা পোর্ট ট্রাস্টের চেয়ারম্যান বিনীত কুমার বলেন, ”এই লাইটের থিম উপলক্ষ্য অনুযায়ী পাল্টানো যাবে৷ স্বাধীনতা দিবস হোক কিংবা দোল, প্রতিটি উপলক্ষ্য অনুযায়ী এলইডি লাইটের মাধ্যমে হাওড়া ব্রিজের সাজ সজ্জার বদলানো যাবে৷’’

তিনি আরও জানান, খুব শিগগির এই কাজ শুরু করার পরিকল্পনা রয়েছে ৷ এই আলোকসাজ টুরিস্টদের বিশেষ ভাবে আকর্ষিত করবে৷ নতুন আলোর সাজে বিদ্যাসাগর সেতু থেকেই রবীন্দ্র সেতুকে দেখা যাবে৷ ব্রিজের স্তম্ভ ও বর্ডারগুলি আলাদাভাবে চমকাবে৷ তবে এই সাজে ব্রিজের ঐতির্য্য কোনও ভাবে যাতে নষ্ট না হয়, সেই দিকেও নজর রাখবে কলকাতা পোর্ট ট্রাস্ট কতৃপক্ষ৷

২০০৬ সালে হাওড়া ব্রিজকে সোডিয়াম ভেপারের আলোয় মো়ড়া হয়েছিল৷ তবে সেই আলো খুব শিগগির ক্ষিণ হয়ে যায় ৷ হুগলি নদীর উপর যখন এই ব্রিজটি তৈরি হয়েছিল, তখন এটি বিশ্বের তৃতীয় বৃহত্তম ক্যান্টিলিভার ব্রিজ ছিল৷ তবে দুনিয়াজুড়ে আরও নতুন নতুন এমন ব্রিজ গড়ে ওঠায় বর্তমানে এই ব্রিজটি ষষ্ঠ স্থানে নেমে এসেছে৷ তবে এই সাজসজ্জার দিক থেকে এখনও অনেকটাই পিছিয়ে এই সেতু৷ হুগলি নদীতে উপর অবস্থিত এই ব্রিজ নতুন সাজের ভেলকি দেখিয়ে বিদেশি ব্রিজগুলিকে কতটা টেক্কা দিতে পারে এবার সেই দিকেই নজর রাজ্যবাসীর৷

Proshno Onek II First Episode II Kolorob TV