বিজেপি প্রতিবাদ

হাওড়া : দীর্ঘদিন ধরে পঞ্চায়েতকে একাধিকবার জানিয়েও সুরাহা মেলেনি। আর তার জেরেই পানীয় জল পেতে নিত্য সমস্যার সম্মুখীন হতে হচ্ছে কয়েকশো সাধারণ মানুষকে। এই অভিযোগ তুলেই মঙ্গলবার শ্যামপুর থানার কমলপুর গ্রাম পঞ্চায়েতের সামনে রাস্তা অবরোধ করল বিজেপি কর্মী-সমর্থকরা।

অবরোধকারীদের অভিযোগ, কমলপুর গ্রাম পঞ্চায়েতের অন্তর্গত নুনেবাড় এলাকায় জলের কলগুলি দীর্ঘদিন ধরে খারাপ। স্থানীয় পঞ্চায়েতে একাধিকবার জানিয়েও কোনো লাভ হয়নি। অভিযোগ, ওই বুথে বিজেপির পঞ্চায়েতের সদস্য থাকায় ব্যবস্থা নিচ্ছেনা তৃণমূল পরিচালিত কমলপুর গ্রাম পঞ্চায়েত। তাই বাধ্য হয়েই পানীয় জলের দাবিতে হাতে কলসী-বালতি-প্ল্যাকার্ড নিয়ে বিজেপির নেতৃত্বে রাস্তায় নামেন বেশ কিছু মানুষ। সকাল এগারোটা থেকে দুপুর একটা অব্ধি প্রায় দু’ঘন্টা অবরোধ চলে। অবরোধের পাশাপাশি জলের দাবিতে বিক্ষোভ দেখান অবরোধকারীরা। ঘটনাস্থলে আসে শ্যামপুর থানার পুলিশ। বিজেপির শ্যামপুর-৪ নং মন্ডলের সভাপতি কৌশিক চক্রবর্তীর অভিযোগ,”নুনেবাড় এলাকায় দীর্ঘদিন ধরে পানীয় জলের কল খারাপ। এলাকার পঞ্চায়েত সদস্য বিজেপির হওয়ায় কোনো কর্ণপাত করছে না তৃণমূল পরিচালিত পঞ্চায়েত।

শ’পাঁচেক সাধারণ মানুষ নিত্যদিন চরম দুর্ভোগের শিকার হচ্ছেন।” যদিও বিজেপির সমস্ত অভিযোগ অস্বীকার করেছেন স্থানীয় পঞ্চায়েত সমিতির সদস্যা শ্যামলী সাউ। তিনি বলেন,”এলাকায় আটটি টিউবওয়েল রয়েছে। জলের কোনো সমস্যা নেই।” তাঁর অভিযোগ,”সামনেই ভোটের সময়। তাই জল নিয়ে রাজনীতি করে বিজেপি এলাকার মানুষকে তাতাতে চাইছে।”

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.