হাওড়া: ফি কমানোর দাবিতে ফের বিক্ষোভ হাওড়ায়। এবার হাওড়া ময়দানের চার্চ রোডের একটি ইংরেজি মাধ্যম স্কুলের সামনে বৃহস্পতিবার সকালে বিক্ষোভ দেখালেন অভিভাবকরা।

তাঁদের অভিযোগ, ফি কমানোর দাবিতে সরব হওয়ার পরেও মাত্র ৫০ টাকা ফি কমিয়েছে স্কুল কর্তৃপক্ষ। প্রতি মাসে প্রায় আড়াই হাজার টাকা করে তাঁদের স্কুলের ফি জমা দিতে হচ্ছে। অথচ লকডাউনের সময় অনেক অভিভাবকেরই পরিবারে আয় কমে গিয়েছে।

অভিভাবকদের দাবি, লকডাউনের সময় স্কুলের এই ফি অবিলম্বে মকুব করে দেওয়া হোক। এই সমস্যার কথা স্কুল কর্তৃপক্ষকে জানিয়েও কোনও লাভ হয়নি। তাই বাধ্য হয়েই এদিন তাঁরা ওই ইংরেজি মাধ্যম স্কুলের সামনে বিক্ষোভ দেখান বলে অভিভাবকরা জানান।

এ ব্যাপারে স্কুল কর্তৃপক্ষ অবশ্য কোনও প্রতিক্রিয়া দিতে চায়নি। উল্লেখ্য, একই ইস্যুতে বুধবার সকালেও হাওড়ার গোলাবাড়ির ওয়াটকিন’স লেনের একটি ইংরেজি মাধ্যম স্কুলে বিক্ষোভ হয়েছিল। পাশাপাশি ডোমজুড়ের একটি নামী বেসরকারি ইংরেজি মাধ্যম স্কুলের সামনেও বিক্ষোভ দেখিয়েছিলেন অভিভাবকেরা। এই নিয়ে স্কুলের সামনে উত্তেজনা ছড়ায়।

ডোমজুড়ের ওই স্কুলের অভিভাবকদের সূত্রে জানা গেছে, ফি কমানোর দাবি সম্প্রতি চিঠি দিয়ে স্কুলকে জানানো হলেও স্কুল কর্তৃপক্ষ কোনও সুরাহা করেনি। বরং অবশ্যই টাকা দিতে হবে বলে স্কুল দাবি করে। এমনকি ওই স্কুলের অভিভাবকরা স্কুলের ভিতরে কথা বলার জন্য যেতে চাইলে নিরাপত্তা কর্মীরা তাদের বাধা দেয় বলেও অভিযোগ।

অন্যদিকে, হাওড়ার গোলাবাড়ির বেসরকারি ইংরেজি মাধ্যম স্কুলের অভিভাবকদের অভিযোগ, লকডাউনের সময় থেকে স্কুল বন্ধ রয়েছে। সেই ফি কমানো হবে বলে জানিয়েও স্কুল কথা রাখেনি। লকডাউন চলাকালীন ফি না কমানোর প্রতিবাদেই বুধবার অভিভাবকরা ক্ষোভে ফেটে পড়েন। হাতে প্ল্যাকার্ড নিয়ে বিক্ষোভ দেখান তারা।

পপ্রশ্ন অনেক: চতুর্থ পর্ব

বর্ণ বৈষম্য নিয়ে যে প্রশ্ন, তার সমাধান কী শুধুই মাঝে মাঝে কিছু প্রতিবাদ