নয়াদিল্লি: ২৩ মে, লোকসভা নির্বাচনের ফলাফল ঘোষণার দিন৷ যে দিনের দিকে তাকিয়ে সমগ্র দেশবাসী৷ কে বসতে চলেছেন ক্ষমতার আসনে, তার উত্তর পেতে আর কিছুক্ষণের অপেক্ষা৷ সকাল থেকেই ধীরে ধীরে সেই উত্তরের দিকেই এগোবে দেশ৷ কারণ বৃহস্পতিবার সকাল ৮টা থেকেই শুরু হয়ে যাবে গণনা৷ কিন্তু ঠিক কী পদ্ধতিতে তা হবে চলুন একনজরে দেখে নেওয়া যাক-

গণনার তারিখ এবং সময়- ২৩ মে, সকাল ৮টা থেকে
ভোটের গোপনীয়তা বজায় রাখার শপথ গ্রহণ করবেন রিটার্নিং অফিসার এবং অ্যাসিস্ট্যান্ট রিটার্নিং অফিসাররা৷ গণনার ঠিক আগে তাঁরা সেই শপথবাক্য জোরে উচ্চারণও করবেন৷
গণনার পূর্বে ইভিএম মেশিনগুলি পরীক্ষা করে নেওয়া হবে৷ রিটার্নিং অফিসারের উপস্থিতিতেই এই পরীক্ষা হবে৷
গণনাকেন্দ্রে কাউন্টিং এজেন্টসহ প্রার্থীদের উপস্থিত থাকার অধিকার রয়েছে৷
সবার প্রথমে পোস্টার ব্যালট পেপার গণনা করা হবে৷ এরপর ইভিএম গণনা শুরু হবে৷ রিটার্নিং অফিসারের তত্ত্বাবধানে এবং পরিচালনায় এই গণনা চলবে৷
কোনওভাবে ব্যালট পেপার হারিয়ে গেলে বা নষ্ট হয়ে গেলে গণনার সময় রিটার্নিং অফিসার তৎক্ষণাৎ তা নির্বাচন কমিশনকে জানাবে৷
অবস্থার বিবেচনা করে ইসিআই গণনা সম্পূর্ণ করার নির্দেশ দিতে পারে অথবা পুনর্নিবাচনের নির্দেশ দিতে পারে৷

পশ্চিমবঙ্গে গণনা…
লোকসভা কেন্দ্র- ৪২ এবং গণনা কেন্দ্র- ৫৮
সকাল ৮.১০নাগাদ ইভিএম গণনা শুরু হবে৷ প্রতিটি রাউন্ডের গণনার পরে দায়িত্বপ্রাপ্ত পর্যবেক্ষক সই করবেন এবং তারপরে পরের রাউন্ডের ইভিএম নিয়ে এসে গণনা শুরু হবে৷ এভাবেই রাউন্ডগুলি চলবে৷ ইভিএমের পরে ভিভিপ্যাট গণনা শুরু হবে৷ এর জন্য বিধানসভা প্রতি ৫টি করে বুথ লটারিতে বেছে নেওয়া হবে৷ ভিভিপ্যাট গণনার জন্য কাউন্টিং বুথ তৈরি করা হবে৷
প্রতিটি বিধানসভা কেন্দ্রের পাঁচটি ইভিএম এবং ভিভিপ্যাট গণনা শুরু হবে৷ যদি ইভিএম এবং ভিভিপ্যাটের গণনার মধ্যে গরমিল না থাকে তাহলে পরবর্তী ক্ষেত্রে ইভিএমের গণনা শুরু হবে৷ এরপর ভিভিপ্যাটের গণনা শুরু হবে৷