নখের বিভিন্ন ধরণের স্টাইলের মধ্যে ফ্রেঞ্চ ম্যানিকিওর সবসময় ট্রেন্ডে ইন৷ সফিস্টিকেটেড সাজের সঙ্গে নখের এই স্টাইলটি একেবারে পারফেক্ট৷ অনেকেই এই ম্যানিকিওরের জন্য দ্বারস্থ হন বিভিন্ন পার্লারের৷ অনেকের পক্ষে আবার বারবার পার্লারে গিয়ে এই ম্যানিকিওর করা সম্ভব হয়ে ওঠে না৷ আর তার ফলেই ইচ্ছা থাকলেও নখে করা হয়ে ওঠে না এই সাজ৷ তবে এবার আপনার মুশকিল আসান করার জন্য বাড়িতে বসেই আপনি করতে পারবেন এই মন পছন্দ ম্যানিকিওরটি৷ দেখে নিন কিভাবে করবেন ফ্রেঞ্চ ম্যানিকিওর৷

সবার প্রথমে নখের পুরোনো নেইল পলিশ তুলে ফেলুন রিমুভার দিয়ে। এবার কিউটিক্যাল অয়েল লাগিয়ে নিন নখের চামড়া বা কিউটিক্যালের উপর। কিছুক্ষণ এভাবে রেখে দিন, যাতে চামড়া কিছুটা নরম হয়ে গেল হালকা হাতে নখের ওপর তেলটা একটু ঘুরিয়ে ঘুরিয়ে ম্যাসাজ করে নিন। তারপর একটি কিউটিক্যাল পুশার দিয়ে আস্তে আস্তে কিউটিক্যাল পিছনের দিকে পুশ করুন। কিউটিক্যাল পুশারের অপর প্রান্ত দিয়ে নখে জমে থাকা ময়লা পরিষ্কার করে ফেলুন। নখ পরিষ্কার হয়ে গেলে নেইল কাটার এবং ফাইলার দিয়ে নখ কেটে নিন আপনার পছন্দ অনুযায়ী আকার।
ফ্রেঞ্চ ম্যানিকিওরের জন্য আপনার কয়েক ধরনের নেইলপলিশ দরকার। তিনটি রঙের ওয়াটার কালার, পিঙ্ক বা বেইজ এবং ঝকঝকে উজ্জ্বল সাদা রঙ।

প্রথমে স্বচ্ছ নেইল পলিশ লাগিয়ে নিন নখে। তাতে নখ ভালো থাকবে এবং যেকোনো রঙের নেইল পলিশ ব্যবহার করা হলে কেমিক্যাল থেকে যে হলুদ ছাপ নখে পড়ে তা দূরে রাখবে। ক্লিয়ার কালারের নেইল পলিশটি শুকিয়ে গেলে এর উপর হালকা গোলাপি বা বেইজ রঙের নেইলপলিশ লাগিয়ে নিন। নেইল পালিশ শুকিয়ে গেলে তার উপর আরেক কোট নেইলপলিশ লাগিয়ে নিন ওই একই রঙের।

নেইল পলিশ শুকিয়ে যাওয়ার পর নখের সামনের দিকে অর্থাৎ আপনার নখের ওপর যেটুকু অংশ আপনি সাদা রাখতে চান,সেটি বাদে বাকি অংশে নেইল গাইড লাগিয়ে নিন। যেকোনও দোকানে আপনি এই স্টিকারগুলো কিনতে পারেন। নেইল গাইড না থাকলে আপনি কাপড়ের অংশ বা কাগজও আটকে রাখতে পারেন আপনার নখের উপরে৷ এবার বাড়তি নখের উপর উজ্জ্বল সাদা রঙের নেইল পলিশ লাগিয়ে দিন।

কয়েক মিনিট অপেক্ষা করুন এবার নেইল গাইডটি তুলে ফেলুন। নেইল পালিশ শুকিয়ে গেলে পুরো নখে স্বচ্ছ নেইল পলিশ লাগিয়ে নিন। এভাবেই হয়ে গেল আপনার ফ্রেঞ্চ ম্যানিকিউর।

বর্তমানে ফ্রেঞ্চ ম্যানিকিওরের ধরনে এসেছে বৈচিত্র্য। আজকাল ফ্রেঞ্চ ম্যানিকিওরের সাদা রঙের বদলে এসেছে অন্য রঙের ব্যবহার। লাল, কালো বা ছাই রং অথবা আপনার পছন্দ অনুযায়ী নির্বাচন করতে পারেন যেকোনও রং।  ফ্রেঞ্চ ম্যানিকিউর অনেক দিন ধরে রাখতে কয়েক দিন পর পর ওপরের নেইল পলিশের কোটটি লাগিয়ে নিতে হবে৷

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.