করোনা ভাইরাসের জেরে লকডাউনে গোটা দেশ। এই অবস্থায় অনেক সংস্থাই বাড়ি থেকে কাজ করার অপশন দিয়েছে। অর্থাৎ work-from-home. কিন্তু অফিসে বসে কাজ করা যতটা সহজ বাড়িতে ততটা নয়, এই ক’দিনে সেই অভিজ্ঞতা হয়েছে অনেকেরই।

অফিস থেকে ল্যাপটপ বাড়িতে নিয়ে আসা গেলেও অফিসের ওয়াইফাই তে বসে কাজ করা যতটা সরল, বাড়িতে তার থেকে অনেক বেশি বাধার সম্মুখীন হতে হচ্ছে। নেটের স্পিড কম, বারবার ডিসকানেক্ট হয়ে যাচ্ছে, এমন সমস্যা রয়েছে অনেকেরই। কিন্তু লকডাউনটা তো আর একদিনের নয়, ২১ দিনের। কিভাবে মুক্তি পাবেন এই সব সমস্যা থেকে?

রইল কিছু টিপস:

১. ওয়াইফাই থেকে কল করুন:
যেহেতু বেশিরভাগ মানুষই বাড়িতে বসে আছেন তাই অনেকেই মোবাইলে কথা বলছেন। ফলে মোবাইল নেটওয়ার্কে ফোন পাওয়া যাচ্ছে না অনেক সময় । তাই চেষ্টা করুন ওয়াইফাই কলিং ব্যবহার করতে।

২. রাউটার অন্য কোন ডিভাইসের সঙ্গে যুক্ত করবেন না:
কর্ডলেস ফোন, ল্যাম্প, সুইচ, কম্পিউটার, টিভির সঙ্গে সংযুক্ত করবেন না রাউটার।

৩. রাউটার রাখুন মাইক্রোওয়েভ থেকে দূরে:
মাইক্রোওয়েভ এর কাছে রাখার জন্য রাউটার থেকে ওয়াইফাই সিগন্যাল কম পেতে পারেন। তাই মাইক্রোওয়েভ থেকে রাউটার সবসময় দূরে রাখুন। আর ভিডিও কল করার সময় কিংবা কোন ভিডিও দেখার সময় মাইক্রোওয়েভ চালাবেন না। এতে আপনার ইন্টারনেট স্পিড এর উপর প্রভাব পড়তে পারে।

৪. আপনার কানেকশন এর উপর চাপ কমান:
আপনি যে ওয়াইফাই থেকে ইন্টারনেট ল্যাপটপের ব্যবহার করছেন, ওয়াই ফাই থেকে স্মার্টফোন বা ট্যাবে ওয়াইফাই সংযোগ করবেন না। কারণ এইগুলির ব্যাকগ্রাউন্ডে কিছু-না-কিছু চলতে থাকে, ফলে ইন্টারনেট স্পিড কমে যায়।

৫. রাউটারের প্লাগ লাগান ফোনের সকেটে:
আপনার রাউটার কি ফোনের সকেটে সরাসরি প্লাগ ইন করুন। এর সঙ্গে কোন এক্সটেনশন যুক্ত করবেন না, তাহলে ইন্টারনেটের স্পিড কমে যাবে।

৬. ব্রডব্যান্ড লাইনে স্পিড বাড়ান:
ইন্টারনেটের স্পিড বাড়ানোর জন্য স্যারের সঙ্গে কথা বলুন। প্রোভাইডারের ওয়েবসাইট যোগ করলে সেখান থেকে কিছু সমাধান মিলতে পারে।