নয়াদিল্লি: বিভিন্ন সময়ে হাস্যকর বৈজ্ঞানিক ব্যাখ্যা দিতে বিজেপি নেতাদের জুড়ি নেই। পুরাণ, চিকিত্‍সা, বিজ্ঞান- এ সব কিছু নিয়েই বারবার নানারকম ভিত্তিহীন ও হাস্যকর কথাবার্তা শোনা গিয়েছে বিজেপি নেতাদের মুখে। কখনও দাবি করা হয়েছে গণেশের মাথায় প্লাস্টিক সার্জারি করে হাতির মাথা বসানো হয়েছিল, কখনও বা খোদ প্রধানমন্ত্রী দাবি করেছেন ইন্টারনেট আবিষ্কারের আগেই তিনি ইমেল করে ছবি পাঠিয়েছেন। এবার সেই তালিকায় আরও একটা নাম।

সংস্কৃত ভাষায় নিয়মিত কথা বললে শরীর-স্বাস্থ্য অনেক ভাল থাকবে। কমবে ডায়াবেটিসের মাত্রা, লাগাম থাকবে কোলেস্টেরলে। এমনটাই দাবি করলেন বিজেপি সাংসদ গণেশ সিংহ। শুধু তাই নয়, তাঁর আরও দাবি, কিছু ইসলামিক ভাষা-সহ বিশ্বের ৯৭ শতাংশ ভাষার ভিত্তি সংস্কৃতই।

এ সবের পরে এবার সংস্কৃত ভাষা নিয়ে এক দাবি চাপিয়ে দিলেন গণেশ সিংহ। সংস্কৃত কেন্দ্রীয় বিশ্ববিদ্যালয় বিল নিয়ে একটি বিতর্ক অনুষ্ঠানে অংশ নিয়েছিলেন তিনি। সেখানেই তিনি বলেন, ‘সংস্কৃতে কথা বললে স্নায়ুতন্ত্র শক্তিশালী হয়, নিয়ন্ত্রণে থাকে কোলেস্টেরল ও ডায়াবেটিস।’ একটি মার্কিন সংস্থা গবেষণা করে এমনটা জানিয়েছেন বলে দাবি তাঁর।

বিতর্ক সভায় অভিযোগ ওঠে, বিজ্ঞান, প্রযুক্তি, চিকিত্‍সা ইত্যাদি বিষয়গুলো শিক্ষার ক্ষেত্রে আরও বেশি করে টাকা বরাদ্দ না করে, সংস্কৃত, ভারতীয় দর্শন, যোগ ইত্যাদির চর্চা বাড়াতে চাইছে কেন্দ্র। হিন্দুত্বের প্রসারই এসবের মূল উদ্দেশ্য বলে দাবি ওঠে।

বৃহস্পতিবারই তিনটি সংস্কৃত শিক্ষা প্রতিষ্ঠানকে কেন্দ্রীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের স্বীকৃতি দেওয়ার জন্য লোকসভায় বিল এনেছিল কেন্দ্রীয় মানবসম্পদ উন্নয়ন মন্ত্রক।

প্রশ্ন অনেক: দশম পর্ব

রবীন্দ্রনাথ শুধু বিশ্বকবিই শুধু নন, ছিলেন সমাজ সংস্কারকও