নয়াদিল্লি: বাড়িতে বসে অনলাইন ট্রানজাকশান করতে সবাই কমবেশি অভ্যস্ত আমরা। তাই বাইরে বেরোলেও টাকা নিয়ে সেভাবে যাতায়াত করি না। ক্রেডিট বা ডেবিট কার্ডের মাধ্যমেই লেনদেন চলে। কিন্তু আচমকাই যদি নিজের এটিএম বা ডেবিট কার্ড হারিয়ে ফেলেন, তখন কী হবে।

এতে অ্যাকাউন্ট হ্যাক করে আপনার সঞ্চয় লুঠ হয়ে যাওয়ার আশংকা যেমন থাকে, তেমনই আচমকা দরকারে বারবার ব্যাংকে ছুটতে হতে পারে টাকার জন্য। যার কোনওটাই সুবিধানক বিকল্প নয়। তাই বাড়িতে বসেই হারিয়ে যাওয়া এটিএম কার্ড বা ডেবিট কার্ড ব্লক করা যেতে পারে। এতে কার্ড ব্যবহার করে দুষ্কৃতীরা সঞ্চয় লুঠ করতে পারবে না। অথবা বারবার ব্যাংকেও ছোটার প্রয়োজন হবে না। খুবই সহজ কিছু পদ্ধতিতে বাড়িতে বসেই কার্ড ব্লক করতে পারবেন আপনি।

একটি বিষয় জেনে রাখা ভালো বাড়িতে থেকে কার্ড ব্লক করতে গেলে আপনার ইন্টারনেট ব্যাংকিং চালু রাখা প্রয়োজন। এই পরিষেবা থাকবে, তবেই কার্ড নিজে থেকে ব্লক করতে পারা যাবে। প্রথমে ইন্টারনেট ব্যাংকিং আইডি ও পাসওয়ার্ড দিয়ে অ্যাকাউন্টে লগ ইন করতে হবে। এর পর যান এটিএম সার্ভিসে।

সেখানে গিয়ে বেছে নিন ব্লক এটিএম কার্ড অপশনটি। এই অপশনটি বাছার পরে কয়েকটি প্রশ্নের উত্তর আপনাকে সঠিকভাবে দিতে হবে। কার্ডের নম্বর কি বা কেন কার্ড ব্লক করতে চাইছেন, সেই সংক্রান্ত তথ্য আপনাকে জানাতে হবে। এই প্রশ্নগুলির জবাব দেওয়ার পর সাবমিট অপশনটি বেছে নিতে হবে। এরপর নথিভুক্ত করা মোবাইল নম্বরে একটি ওটিপি পাঠানো হবে। সেই ওটিপি দেওয়ার পরেই কার্ডটি ব্লক হয়ে যাবে।

এটিএম কার্ড বা ডেবিট কার্ড ব্লক করা হয়ে গেলে একটি কনফারমেশন মেল ও মেসেজ পাবেন। এছাড়াও আপনার কার্ডটি ব্লক করার জন্য আবেদন করে সংশ্লিষ্ট ব্যাংকে মেল পাঠাতে পারেন। এছাড়াও কাস্টমার কেয়ারে ফোন করে কার্ড ব্লক করে দেওয়ার আবেদন জানাতে পারেন।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

কোনগুলো শিশু নির্যাতন এবং কিভাবে এর বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়ানো যায়। জানাচ্ছেন শিশু অধিকার বিশেষজ্ঞ সত্য গোপাল দে।