মিউচুয়াল ফাণ্ড রয়েছে? নিয়মিত বিনিয়োগ করেন তাতে? তাহলে আপনার সামনে থাকছে কোটিপতি হওয়ার সুযোগ৷ মিউচুয়াল ফাণ্ডের এসআইপি যদি ৩০ বছর ধরে চালান, তাহলে এই সুযোগ আপনি পেতে পারেন৷ কারণ ১২ থেকে ১৭ শতাংশ হারে রিটার্ন আসলে দীর্ঘমেয়াদী মিউচুয়াল ফাণ্ডের ক্ষেত্রে যথেষ্ট লাভ রয়েছে৷

মিউচুয়াল ফাণ্ড এসআইপি বা সিস্টেমেটিক ইনভেস্টমেন্ট প্ল্যান বিনিয়োগকারীদের কাছে খুবই জনপ্রিয়৷ ইদানিং এর জনপ্রিয়তা ছোট ও মাঝারি বিনিয়োগকারীদের কাছে বাড়ছে৷ তার একমাত্র কারণ দীর্ঘমেয়াদী প্ল্যানে এর আকর্ষণীয় রিটার্ন৷ বিনিয়োগ ক্ষেত্রের বিশেষজ্ঞরা বলছেন কেউ যদি ১০ বছরের বেশি এমনকী ৩০ বছর অবধি এসআইপি করলে ভালো লাভ পেতে পারেন বিনিয়োগকারীরা৷

আরও পড়ুন : ১০ নয়, ৪ থেকে ৫ শতাংশের মধ্যেই ডিএ ঘোষণা হবে

১০ থেকে ১৫ বছর পর্যন্ত বিনিয়োগ করতে পারলে পাওয়া যাবে ১২ থেকে ১৪ শতাংশ রিটার্ণ৷ সেই বিনিয়োগ যদি করা যায় ৩০ বছর পর্যন্ত, তাহলে ১৭ শতাংশ রিটার্ণও পাওয়া যেতে পারে বলে জানাচ্ছেন বিশেষজ্ঞরা৷ অবশ্য এই বিনিয়োগের রিটার্ন নির্ভর করে বাজারের ওঠানামার ওপরে৷ রিটার্ন পাওয়ার সময় থেকে বিগত চার পাঁচ বছরের বাজারের ওঠানামা দেখা হয়৷

কর ও বিনিয়োগ বিশেষজ্ঞরা জানাচ্ছে দীর্ঘমেয়াদী বিনিয়োগের ক্ষেত্রে মিউচুয়াল ফাণ্ডের এসআইপি স্কিম বেশ লাভজনক৷ দীর্ঘমেয়াদী পরিকল্পনা বলতে বিশেষজ্ঞদের মতে ১৫ বছরকে ধরা হয়৷ সেক্ষেত্রে সাধারণত ১২ শতাংশ রিটার্ণ নিশ্চিত থাকে৷ তবে বাজার ভালো হলে ১৫ শতাংশ রিটার্ণও মেলে৷

যদি কোনও ব্যক্তি চাকরি জীবনের শুরুতেই মিউচুয়াল ফাণ্ডে বিনিয়োগ করেন, তাদের জন্য বিনিয়োগকারীদের পরামর্শ যত বেশি বছর সম্ভব বিনিয়োগ করা যায়, তত লাভ৷ সেক্ষেত্রে তাঁদের জন্য ৩০ বছর পর্যন্ত বিনিয়োগ করাটা জরুরি৷

আরও পড়ুন : হারিয়ে ফেলেছেন ডেবিট কার্ড, ঘরে বসে কীভাবে ব্লক করবেন কার্ড জানুন

বিশেষজ্ঞরা বলছেন প্রতি মাসে ২৮৩৩ টাকা বা প্রতিদিন প্রায় ৯৫ টাকা করে ৩০ বছর বিনিয়োগ করা হলে, ১০লক্ষ ১৯ হাজার ৮৮০ টাকা রিটার্ণ মিলবে৷ সঙ্গে ১২ শতাংশ পোস্ট ট্যাক্স ইন্টারেস্ট৷

সুতরাং হিসেব বলছে যদি কোনও বিনিয়োগকারী মাসে ২৮৩৩ টাকা বা প্রতিদিন ৯৫ টাকা করে বিনিয়োগ করেন, তবে সুদ সমেত তাঁর রিটার্ণ আসবে প্রায় এক কোটি টাকা৷ তবে তা ৩০ বছরে৷