নাগপুর: স্টপ-গ্যাপ অধিনায়ক হিসেবে তাঁর সাফল্য কম নয়৷ বিরাট কোহলির অনুপস্থিতিতে এশিয়া কাপে দেশকে চ্যাম্পিয়ন করেছেন৷ এবারও পিছিয়ে থেকে বাংলাদেশের বিরুদ্ধে ভারতকে টি-২০ সিরিজ জেতালেন ক্যাপ্টেন রোহিত শর্মা৷ স্টপ-গ্যাপ ক্যাপ্টেন রোহিত শেষ ম্যাচের আগে তাতিয়ে ছিলেন দলকে৷

রবিবার বাংলাদেশের বিরুদ্ধে তৃতীয় তথা শেষ ম্যাচ ৩০ রানে জিতে তিন ম্যাচের টি-২০ সিরিজ ২-১ জিতে নেয় টিম ইন্ডিয়া৷ নাগপুরে সিরিজের শেষ ম্যাচে ‘হিটম্যান’-এর ভোকাল টনিকে ভারতীয় ক্রিকেটাররা বাড়তি তাগিদ অনুভব করেছিলেন। জেতার জন্য ঝাঁপিয়ে পড়েছিলেন তাঁরা৷ ম্যাচের পর ড্রেসিংরুমের খবর ফাঁস করেন ভারতীয় ইনিংসে সর্বাধিক ৬২ রান করা শ্রেয়স আইয়ার।

ব্যাট হাতে শ্রেয়স ও লোকেশ রাহুলের দুরন্ত হাফ-সেঞ্চুরির পর বল হাতে বাংলাদেশি ব্যাটসম্যানদের সামনে বিভিষীকা হয়ে উঠেছিলেন ডানহাতি পেসার দীপক চাহার৷ প্রথম ভারতীয় পুরুষ ক্রিকেটার হিসেবে টি-২০ ক্রিকেটে হ্যাটট্রিকের পাশাপাশি বিশ্বরের্কড করেন দীপক৷ বিদর্ভ ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশন স্টেডিয়ামে ৩.২ ওভার বল করে ৭ রান খরচ করে ৬টি উইকেট নেন তিনি৷ আন্তর্জাতিক টি-২০ ক্রিকেটের এটাই সেরা বোলিং পারফরম্যান্স৷

ভারতের ১৭৪ রান তাড়া করতে গিয়ে ১৪৪ রানে গুটিয়ে যায় বাংলাদেশ ইনিংস৷ রান তাড়া করতে নেমে শুরুটা ভালো না-হলেও ওপেনার মহম্মদ নইমের ঝোড়ো ব্যাটিং বাংলাদেশকে ম্যাচ ফিরিয়েছিল৷ এতে চাপে পড়ে যায় ভারত। তখন টেলিভিশন ক্যামেরায় দেখা যায়, সতীর্থদের ডেকে নিয়ে ভোকাল টনিক দিচ্ছেন ক্যাপ্টেন রোহিত। শ্রেয়স বলেন, ‘আমরা চাপে পড়ে গিয়েছিলাম। প্রথম দিকে আমরা একটু হালকা দিয়েছিলাম। ওরা দারুণ খেলতে শুরু করে দেয়। সেই সময়ে রোহিত আমাদের পেপ টক দেয়। ক্যাপ্টেনের কথা শোনার পরেই আমরা ম্যাচ জেতার তাগিদ অনুভব করি।’

ম্যাচের শেষে ক্যাপ্টেন রোহিত জানান, ‘বোলারদের জার্সির গুরুত্ব মনে করিয়ে দিয়েছিলাম।’ অধিনায়কের পেপ-টকে কাজ হয়। দীপক চাহার-শিবম দুবের দাপটে বাংলাদেশের ব্যাটিংয়ে ধস নামে পড়ে। ৪৮ বলে ৮১ রান করা নঈমকে বোল্ড করেন শিবম৷ তারপর ভয়ংকর হয়ে ওঠেন চাহার৷ আঠারো নম্বর ওভারের শেষ বলে এবং কুড়ি নম্বর ওভারের প্রথম দু’ বলে দু’টি উইকেট তুলে নিয়ে ভারতকে ম্যাচ জেতানোর পাশাপাশি ভারতের প্রথম পুরুষ ক্রিকেটার হিসেবে আন্তর্জাতিক টি-২০ ক্রিকেটে হ্যাটট্রিক করেন চাহার৷ একই সঙ্গে মাত্র ৭ রান খরচ করে ৬টি উইকেট তুলে নিয়ে বিশ্বরেকর্ড গড়েন বছর সাতাশের ডানহাতি পেসার৷ ভেঙে দেন শ্রীলঙ্কান স্পিনার অজন্তা মেন্ডিসের রেকর্ড৷ ২০১২ সালে জিম্বাবোয়ের বিরুদ্ধে মেন্ডিসের ৮ রানে ৬টি উইকেট ছিল এতদিন আন্তর্জাতিক টি-২০ ক্রিকেট সেরা বোলিং পারফরম্যান্স৷