লেহ (লাদাখ) : তাপমাত্রা মাইনাস ৭০ ডিগ্রি। যেদিকে চোখ যায় শুধুই বরফ। এই অবস্থায় জীবন ধারণ ক্রমশ কঠিন হয়ে পড়ছে সিয়াচেনের বেসক্যাম্পে অবস্থানরত জওয়ানদের। এমনকি প্রতিকূল ওই আবহাওয়ায় খাবারটুকু মুখে তোলাও দায় হয়ে পড়েছে তাঁদের। সংগ্রহে থাকা খাবার নিমেষে পরিণত হচ্ছে বরফে।

এমনকি হাতুড়ি দিয়েও ফাটানো যাচ্ছে না ডিম! এমনই এক ভিডিও ভাইরাল হয়েছে নেট দুনিয়ায়। যা দেখে হতবাক নেটিজেনরা। এই ভিডিও দেখিয়ে জওয়ানরা বিরক্তিও প্রকাশ করেন। বলেন, “জীবন নরকে পরিণত হয়েছে।”

প্রতিদিনের জীবনধারণের জন্য যে সমস্ত খাদ্যসামগ্রী ব্যবহার করে থাকেন জওয়ানরা, সেগুলো এতটাই জমে গিয়েছে যে প্রাণপণ চেষ্টা করেও মুখে তোলা যাচ্ছে না। ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে, তিন জওয়ান প্যাকেট ছিঁড়ে দেখাচ্ছেন, জুস কীভাবে শক্ত ইটে পরিণত হয়েছে। ছুড়ি দিয়ে ঠুকে এমনকি হাতুড়ি দিয়েও ভাঙা যাচ্ছে না। অন্যদিকে ডিমও এতটাই শক্ত হয়ে গিয়েছে যে ছুঁড়ে তো ভাঙা যাচ্ছেই না এমনকি সেটিকেও ভাঙা যাচ্ছে না হাতুড়ির ঘায়ে! এই ভিডিওই সোশ্যাল মিডিয়ায় রীতিমতো ভাইরাল৷ তাঁদের দুঃসাহসিক জীবনকে কুর্ণিশ জানান নেটিজেনরা।

প্রায় ২০ হাজার ফুট উঁচুতে এই বেসক্যাম্পে প্রতিদিনই বরফ ঝড়, তুষার ক্ষত (ফ্রস্টবাইট)-এর সঙ্গে যুঝতে হয় জওয়ানদের। সেই সঙ্গে তুষার ধসের ঘটনাও নিত্যদিনের। এমতাবস্থায় তাদের কাজে সর্বদাই অটল রয়েছেন সেনারা। সোশ্যাল মিডিয়ায় এভাবে ভিডিও দিয়ে কি ইঙ্গিত দিতে চাইছেন জওয়ানরা, তা নিয়ে থেকে যাচ্ছে ভাবনা।

এর আগে জওয়ান তেজ বাহাদুরও এই রকমই সেনাদের নিম্ন মানের খাবার-দাবার পরিবেশন করেছিলেন। ক্ষোভ প্রকাশ করেছিলেন সরকারের প্রতি।