চেন্নাই: শুরু হয়ে গিয়েছে বাঙালির শ্রেষ্ঠ উৎসব দুর্গাপূজা। বাঙালির সেরা উৎসবের আমেজ ছড়িয়ে পড়েছে সারা দেশে। বাঙালির এই উৎসব শুধুমাত্র বাংলাতেই নয় ছড়িয়ে রয়েছে নানা রাজ্যতে। দক্ষিণের চেন্নাইও বাদ নেই এই উৎসব থেকে। ইডলি, ধোসা, সম্বর, উত্তপম ছেড়ে এই কয়েকটা দিন সেখানকার প্রবাসীরাও এই কয়েকটা দিন কবজি ডুবিয়ে খান খাঁটি বাঙালি খাবার।

আন্না নগরের দক্ষিণী সোসাইটি বহু বছর ধরে দুর্গা পুজোর আয়োজন করছে। এই বছর এখানকার পুজোর রজত জয়ন্তী। সুতরাং আরও জমজমাট ভাবে মেতে উঠেছেন এখানকার বাঙালিরা।

উদ্যেোক্তরা জানান, দুর্গাপুজো উপলক্ষে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয় এছাড়াও পরবর্তী প্রজন্মকে বাঙালি সংস্কৃতি তুলে ধরার জন্য বিভিন্ন কাজকর্ম করা হয়। এছাড়াও কলকাতা থেকে বিভিন্ন কলাকুশলীরাও আসেন। পুজোর এই কিছুদিন সব কাজ ফেলে আনন্দে মেতে ওঠেন এখানকার বাঙালি সম্প্রদায়।

বসন্ত নগরের সাউথ মাদ্রাস কালচারাল অ্যাসোসিয়েশনের প্রেসিডেন্ট সুদীপ মিত্র জানিয়েছেন এবারে তাদের পুজো পা দিয়েছে ৪১ তম বর্ষে। জানিয়েছেন, তাঁদের পুজোর প্রস্তুতি শুরু হয় তিন মাস আগে থেকে। জানিয়েছেন, কলকাতা থেকে নাচের দল সেখানে যাবেন এবং অনুষ্ঠান করবেন।

বাঙালিদের সেরা উৎসব অথচ খাবার থাকবে না তা হয় না। আর তাই চেন্নাইয়ের এই পুজোতে বাঙালি খাবারের আয়োজন করা হয়। এছাড়াও নিরামিষ ভোগের আয়োজন করা হয়। এই পুজোতে প্রত্যেককে ভোগ দেওয়া হয়। পুজো উপলক্ষে কলকাতা থেকে রাধুনি এনে রান্না করা হয় বলেও জানিয়েছেন সুদীপ মিত্র।

আন্না নগরের ভোগের পদ প্রতিদিন বদল করা হয়। বিভিন্ন ধরনের পদ রান্না করে মনের সঙ্গে সঙ্গে পেটের আনন্দতেও মেতে ওঠেন সেখানকার মানুষজন। সন্ধ্যার পর থেকে বিভিন্ন ধরনের খাবারের আয়োজন করা হয়। এছাড়াও প্রতি বছরের মতো দশমীর দিন সিঁদুর খেলা এবং ধুনুচি নাচের আয়োজন করা হয়।