রোম: আজকালকার দিনে কত কষ্ট করে সাধারণ মানুষ টাকা-পয়সা আয় করেন। সকলেই চায় কিছু টাকা জমিয়ে নিজেদের স্বপ্নের বাড়ি তৈরি করতে। মাথার ওপর ছাদ থাকুক। তবে এখন বাড়ি কেনা মোটেই সস্তা না। কিন্তু আপনি কি জানেন, এমন একটি দেশ আছে যেখানে বাড়ি বিক্রি হচ্ছে মাত্র ৮৩ টাকায়।

আজ্ঞে হ্যাঁ। হাজার হাজার বিদেশিরা মাত্র ৮৩ টাকা দিয়ে ইতালিতে বাড়ি কিনেছেন। যার বিরোধিতা করছেন স্থানীয় মানুষ। তাঁদের বক্তব্য, স্থানীয় প্রশাসন তাঁদের বাড়ি বিক্রি করে দিচ্ছে।

আরও পড়ুন- BREAKING: বাতিল হয়ে গেল কো-উইন অ্যাপ, এবার কোথায় নথিভুক্ত করবেন নাম

ইতালির সিসলি আইল্যান্ডে এই বাড়ি বিক্রি করা হচ্ছে। ১৪ শতকে ওই দ্বীপে গ্রামের পত্তন হয়। এখন সেখানে প্রচুর বাড়ি। বেশিরভাগ বাড়ির অবস্থাই অবশ্য এখন নড়বড়ে। যার জেরে এখানকার লোকেরা গ্রাম ছেড়ে শহরে থাকতে শুরু করেছেন ফলে এই দ্বীপের বেশিরভাগ বাড়িই খালি পড়ে থাকে। এখন স্থানীয় প্রশাসন এই বাড়িগুলি বিক্রি করছে।

বাড়ি বিক্রি নিয়ে স্থানীয়দের প্রতিবাদের প্রেক্ষিতে সিসলির মেয়র জানিয়েছেন, স্থানীয় কর্তৃপক্ষ ওই গ্রামের জনসংখ্যা বাড়াতে বদ্ধপরিকর। তাই মাত্র ৮২ টাকায় বাড়ি বিক্রি করা হচ্ছে।

আরও পড়ুন – ‘মুখ্যমন্ত্রীর তৈরি ভাল রাস্তা দেখতেই মোদী-শাহরা বারবার আসছেন’, কটাক্ষ চন্দ্রিমার

মাত্র ১০০ টাকারও কমে বাড়ি বিক্রি হওয়ার কথা শুনেই বাড়ি কিনতে খরিদ্দারদের ধুম পড়ে গিয়েছে। ক্রেতারা বাড়ি কিনতে নিজেদের মধ্যে প্রতিযোগিতা শুরু করে দিয়েছে। তবে মেয়রের এই বাড়ি বিক্রির পরিকল্পনায় বাধা হয়ে দাঁড়িয়েছে ওই গ্রামের আদি বাসিন্দা, যারা এখন শহরে থাকছে। তাঁদের বক্তব্য, “আমাদের বাড়ি, আমাদের গ্রাম, প্রশাসন বিক্রি করার কে? ”

আদি বাসিন্দাদের এই প্রশ্নের উত্তরে মেয়র লিওলুকা জানাচ্ছেন, গ্রামের বেশিরভাগ বাড়িঘরের অবস্থাই খারাপ। ক্রমেই ওই গ্রামের জনসংখ্যা দিনে দিনে কমছে। এখন আমাদের উচিৎ, যাতে এই গ্রাম আবার সঠিক ভাবে বসে সেই দিকে নজর দেওয়া। অন্যদিকে এক স্থানীয় মহিলার দাবি, ঘর-বাড়ি বিক্রির জন্য প্রশাসন তাঁদের অনুমতিও নেয়নি।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

করোনা পরিস্থিতির জন্য থিয়েটার জগতের অবস্থা কঠিন। আগামীর জন্য পরিকল্পনাটাই বা কী? জানাবেন মাসুম রেজা ও তূর্ণা দাশ।