মুম্বই: বদলে গেল সদ্যোজাত৷ ঘটনাটি ঘটেছে মহারাস্ট্রের বিড জেলার একটি বেসরকারি হাসপাতালে৷ পুরো ঘটনাটির জন্য হাসপাতাল কর্তৃপক্ষকেই দায়ী করেছেন দম্পতি৷ ছায়া এবং রাজু, কুপ্পা গ্রামের বাসিন্দা৷ পুলিশ সূত্রের খবর, ২১ মে ডিসচার্জ করার সময় তাঁদের হাতে একটি কন্যাসন্তানকে তুলে দেন কর্তৃপক্ষ৷ কিন্তু, ছায়াদেবীর দাবি তিনি পুত্র সন্তানের জন্ম দিয়েছিলেন৷

জানা গিয়েছে, গত ১১ মে বিড জেলার সিভিল হাসপাতালে আন্ডার ওয়েট শিশুটির জন্ম দেন ছায়াদেবী৷ কিন্তু, ওজন কম হওয়ার জন্য শিশুটির বিশেষ যত্নের জন্য শ্রী চাইল্ড হাসপাতালে পাঠানো হয়৷ আর, সেখান থেকেই বিপত্তি ঘটে৷

বিড শহরের এক পুলিশকর্মী জানান, দুটি হাসপাতাল থেকেই শিশুটির জন্ম সর্ম্পকিত যাবতীয় তথ্য সংগ্রহ করা হচ্ছে৷ শ্রী চাইল্ড হাসপাতাল থেকে ডিসচার্জের সময় শিশুটির নেওয়া পায়ের ছাপটিকে ঔরাঙ্গবাদে পাঠানো হয়েছে পরবর্তী তদন্তের জন্য৷ সত্যতা যাচাইয়ের জন্য DNA পরীক্ষার ব্যবস্থা করা হবে৷

পুলিশ তরফ থেকে জানানো হয়েছে DNA পরীক্ষার জন্য সাধারণত আট দিন সময় লাগে৷ তবে, সেটিকে দ্রুততার সঙ্গে করার চেষ্টা করা হচ্ছে৷ ততদিন পর্যন্ত শিশুকন্যাটিকে বিড জেলার সিভিল হাসাপাতালের অধীনে রাখার ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে৷