স্টাফ রিপোর্টার, বাঁকুড়া: সাধারণ মানুষের জন্য নিখরচায় হাসপাতাল পরিষেবার উদ্বোধন হল বাঁকুড়ায়৷ ২০১৮ সালের ২৮ নভেম্বর মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় তাঁর বাঁকুড়া জেলা সফর কালে উদ্বোধন করেছিলেন এই হাসপাতাল ভবনের। এদিন হাসপাতালের নিজস্ব ভবনে পুরোদমে কাজ শুরু হল।

শহরের সাধারণ মানুষের সুবিধার্থে বাঁকুড়া পুরসভার উদ্যোগে আধুনিক মানের, সুসজ্জিত হাসপাতাল চালু হল সোমবার। শহরের কুচকুচিয়া রোডে নবনির্মিত এই হাসপাতালের উদ্বোধন করেন পুরপ্রধান মহাপ্রসাদ সেনগুপ্ত৷ উপস্থিত ছিলেন পুরসভার নির্বাচিত কাউন্সিলর ও দায়িত্বপ্রাপ্ত চিকিৎসক, স্বাস্থ্য কর্মীরা।

বাঁকুড়া পুরসভা সূত্রে পাওয়া খবরে জানা গিয়েছে, এত দিন শহরে পুরসভার উদ্যোগে তিনটি হাসপাতাল চালু ছিল। প্রত্যেকটিই ভাড়া বাড়িতে কাজ চালাচ্ছিল। সম্প্রতি ইদগামহাল্লা এলাকাতে এই ধরণের হাসপাতালের নিজস্ব বাড়িতে কাজ শুরু হয়েছে।
জাতীয় স্বাস্থ্য মিশনের বরাদ্দকৃত অর্থে নবনির্মিত এই হাসপাতাল ভবনে আজ থেকেই রোগীরা বহির্বিভাগে চিকিৎসাকরাতে পারবেন বলে জানানো হয়েছে৷ এখানে বিনামূল্যে প্রয়োজনীয় ওষুধ ও যাবতীয় স্বাস্থ্য পরীক্ষার সুযোগ মিলবে এখানে।

হাসপাতাল ভবনের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন শেষে পুরপ্রধান মহাপ্রসাদ সেনগুপ্ত বলেন, গত দু’বছর আগে শহরে পুরসভা পরিচালিত তিনটি হাসপাতালের কাজ শুরু হয়েছিল ভাড়া বাড়িতে৷ কয়েক মাস ১২ নম্বর ওয়ার্ডের ইদগামহাল্লায় হাসপাতালের নিজস্ব ভবনে কাজ শুরুর পর এদিন ৬ নম্বর ওয়ার্ডে কুচকুচিয়া এলাকায় দ্বিতীয় হাসপাতালটিও ভাড়া বাড়ি ছেড়ে নিজস্ব ভবনে চালু হল।

মূলত: বাঁকুড়া শহরের বস্তি এলাকা হিসেবে চিহ্নিত জায়গাগুলিতেই এই হাসপাতাল চালু হয়েছে। এখান থেকে সাধারণ মানুষ সম্পূর্ণ নিখরচায় ‘আউটডোর’ স্বাস্থ্য পরিষেবার সুযোগ পাবেন। একই সঙ্গে কেঠারডাঙ্গা এলাকায় তৃতীয় হাসপাতালটির নিজস্ব ভবন খুব শীঘ্রই চালু হয়ে যাবে বলে তিনি জানান।