কলকাতা : দেশে বাড়ছে করোনা ভাইরাস আক্রান্তের সংখ্যা। রাজ্যেও বাড়ছে করোনা ভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা। তাই সরকারি হাসপাতালের বাড়ছে আইসোলেশন ওয়ার্ডের সংখ্যা। এবার ৩০০ করোনা রোগীর চিকিৎসার পরিকাঠামো গড়ে তুলতে নির্দেশ দেওয়া হলো এনআরএস হাসপাতালকে। শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত দেশে করোনা ভাইরাস আক্রান্তে মৃতের সংখ্যা দাঁড়াল ৮ জনে। দেশজুড়ে আক্রান্ত প্রায় ৪০০ জন। এদের মধ্যে কলকাতায় গতকাল রবিবার একই পরিবারের তিনজন আক্রান্ত হয়েছেন। ফলে উদ্বেগ বাড়ছে শহরবাসীর।

এনআরএস হাসপাতাল সূত্রে খবর, এবার থেকে স্বাস্থ্যকর্মীরা হাসপাতাল থেকেই করোনা আক্রান্ত রোগীদের পরিষেবা দেবেন। তাদের জন্য হাসপাতালেই থাকা খাওয়ার ব্যবস্থা করা হয়েছে। এই হাসপাতলে ৩০০ জন করোনা আক্রান্ত রোগীর চিকিৎসার পরিকাঠামো গড়ে তোলার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। অর্থাৎ যে সব রোগীর রিপোর্ট পজিটিভ। এর জন্য তিনজন অ্যাসিস্ট্যান্ট সুপারের নেতৃত্বে একটি টিম গঠন করা হয়েছে। অন্যদিকে করোনা পরিস্থিতি মোকাবেলায় কেন্দ্রীয় সরকার পশ্চিমবঙ্গে আরো পাঁচটি এবং গোটা দেশে ৭৯টি বেসরকারি পরীক্ষাগারকে অনুমোদন দিল করোনা পরীক্ষার‌।

রইল পশ্চিমবঙ্গের তালিকা- ১) অ্যাপোলো হসপিটাল। ২) SRL লিমিটেড রেফারেন্স ল্যাবরেটরী সল্টলেক সিটি। ৩) SRL লিমিটেড, ফর্টিস হসপিটাল, ৭৩০ ‌আনন্দপুর, ইএম বাইপাস । ৪) সুরক্ষা ডায়াগনস্টিক,নিউ টাউন। ৫) মেডিকা সুপার স্পেস্যালিটি হসপিটাল, কলকাতা।

এদিকে দেশে আরও একজন করোনার শিকার৷ সোমবার সকালে মুম্বইয়ে মারা গেলেন ফিলিপিন্সের এক পর্যটক৷ এ নিয়ে দেশে করোনাভাইরাসে মৃত্যু হল মোট ৮ জনের৷ আগেই মহারাষ্ট্রে এক জনের মৃত্যু হয়েছে৷ তিনি ছিলেন ভারতের বাসিন্দা৷ কিন্তু মুম্বইয়ে মারা গিয়েছেন ৬৮ বছরের ফিলিপিন্সের এক পর্যটকের। করোনাভাইরাস মারাত্মক আকার ধারণ করেছে মহারাষ্ট্রে৷ সোমবার সকালেই আরও ১৫ জনের শরীরের COVID19 পজিটিভ পাওয়াা গিয়েছে৷ এ নিয়ে মহারাষ্ট্রে ৮৯ জনের শরীরে মিলেছেন মারণ এই করোনা ভাইরাস৷

Proshno Onek II First Episode II Kolorob TV