কলকাতা: নীলের পুজোয় সব ভালো যাবে এমনটাই ভাবছেন? তাহলে দেখুন কার ভাগ্যে কী অপেক্ষা করছে এই দিনে।
মেষ: অতিথিযোগের সম্ভাবনা। নিজের দায়িত্ব পালন করতে না পারায় সংসারে অশান্তি হবে।

বৃষ: বাড়িতে বিয়ের খবর আসতে পারে। যানবাহন ব্যবহারে সচেতন থাকবেন।

কর্কট: পুরনো পাওনা আদায় হতে পারে। স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে সুসম্পর্ক থাকবে। প্রেম ভাগ্য ভালো যাবে না।

মিথুন: কাজের ক্ষেত্রে নতুন কোনো বন্ধু তৈরিতে সতর্কতা অবলম্বন করতে হবে। মন ভালো থাকবে। উচ্চশিক্ষার জন্য বিশেষ কোনো সুযোগ আসতে পারে বিদেশ থেকে।

মকর: বন্ধুদের কথা শুনলে সমস্যা হয়ে যেতে পারে। সহকর্মচারীদের নিয়ে আজ অনেক দুশ্চিন্তায় থাকবেন। যুবকরা এমন কোনো কাজ করবেন না যেন আইনি ঝামেলায় পড়তে হয়।

আরো পোস্ট- দেখতে স্বাস্থ্যকর তবে এগুলিতে বাড়বে ওজন! ডায়েটে খাবেন না

মীন: পিঠের যন্ত্রণায় কষ্ট হতে পারেন। স্বাস্থ্যের প্রতি সতর্ক থাকুন। অন্যের ঝগড়ায় নাক গলিয়ে নিজের ঝামেলা বাড়ানো ঠিক হবে না। সন্তানদের পড়াশোনার প্রতি নজর দিন। কোনো উচ্চাশা থাকলে সফল হতে পারে।

কন্যা: ভ্রমণের সুযোগ আসবে। সকাল থেকে আর্থিক সমস্যা পড়তে হতে পারে। চাকরিজীবীদের জন্য সময়টি ভালো যাবে না আর ব্যবসায়ীদের জন্যও সময়টি খুব একটা শুভ নয়।

তুলা: স্বাস্থ্য ভাল যাবে না। নতুন কোনো কিছু পাওয়ায় আনন্দ পাবেন। অফিসে সুনাম হবে।

কুম্ভ: যাদের বাতের সমস্যা রয়েছে তারা সতর্ক হয়ে যান। ছাত্র-ছাত্রীদের পড়াশোনার ক্ষেত্রে নতুন সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা উচিৎ হবে না আজ। মন খারাপের জন্য শরীর খারাপ হতে পারে। গুরুত্বপূর্ণ কাজে বিপত্তি আসতে পারে।

বৃশ্চিক: আয়ের চেয়ে আজ ব্যয় বেশি হতে পারে। হৃদ রোগজনিত সমস্যা দেখা দিতে পারে। সঙ্গীত চর্চায় সুনাম বৃদ্ধি পাবে। উচ্চশিক্ষার ক্ষেত্রে সময়টা ভালো যাবে না।

ধনু: গুরুজনদের কথার দেবেন। বিশেষ কোনো কাজের সুযোগ আসতে পারে। টেনশন ও দ্বিধা দ্বন্দ্বেই দিনটি কাটবে মিশ্রভাবে। জীবনে নতুন প্রেম আসতে পারে। বাড়ির দায়িত্ব পালনের জন্য সুনাম হতে পারে আপনার।

সিংহ: দাম্পত্য সুখে সমস্যা হতে পারে । সন্তানদের প্রতি খেয়াল রাখুন। দুশ্চিন্তা কিছুটা বেড়ে যেতে পারে। নিজের স্বাস্থ্যের প্রতি খেয়াল রাখুন। ছাত্র-ছাত্রীদের উচিৎ হবে লেখাপড়ায় মনোনিবেশ করা। পুরনো ঋণ শোধ হতে পারে। পড়াশোনার জন্য খরচ বাড়বে।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.