নয়াদিল্লি: নাসার ওপর আশা ছিল৷ চন্দ্রায়ন ২য়ের ল্যাণ্ডার বিক্রমের হারিয়ে যাওয়া ছবি হয়ত খুঁজে বের করবে মার্কিন মহাকাশ গবেষণা সংস্থা৷ কিন্তু যতদিন যাচ্ছে, সেই আশা ক্রমশই ক্ষীণ থেকে ক্ষীণতর হয়ে যাচ্ছে৷ এখনও বিক্রমের কোনও ছবি নাসা পাঠাতে পারেনি৷

নাসার লুনার রিকনাসান্স অরবিটার বা এলআরও এর আগে দুটি সম্ভাব্য ছবি পাঠায়৷ তবে সেখান থেকে বিক্রমের অবস্থান স্পষ্ট হয়নি৷ এরপর চাঁদের ওই পৃষ্ঠে শুরু হয়ে যায় লুনার নাইটস৷ ফলে অন্ধকারাচ্ছন্ন এলাকায় বিক্রমকে খুঁজে পাওয়া আরও কষ্টকর হয়ে পড়ে৷

নাসার এলআরও টিম জানিয়েছিল, আগের ছবিগুলির সঙ্গে নতুন ছবিগুলির তুলনা করে দেখা হলেও বিশেষ লাভ হয়নি৷ বিজ্ঞানীদের আশা ছিল, ছায়াঘেরা জায়গাতেই কোথাও রয়েছে বিক্রম৷ নয়তো যেখানে বিক্রম নেমেছে, সেই এলাকার ছবি তোলেনি নাসার অরবিটার৷

আরও পড়ুন : নয়া উদ্য়োগ, পুজো মন্ডপে থাকবে ভোটার তালিকা সংশোধনী স্টল

যে সময় ছবি দুটি তোলা হয়, তখন চাঁদের ওই পৃষ্ঠে ঘন অন্ধকার৷ ফলে বিক্রম ঠিক কোথায় রয়েছে, তার হদিশ সঠিকভাবে মেলেনি৷ এলআরও মিশনের ডেপুটি প্রজেক্ট সায়েন্টিস্ট জন কেলার পিটিআইকে দেওয়া এক সাক্ষাতকারে এই তথ্যই দেন৷ তবে বলা হয়েছিল ২১শে সেপ্টেম্বরের মধ্যে বিক্রমের সঙ্গে যোগাযোগের করার চেষ্টা সফল হলে তবেই বিক্রমকে খুঁজে পাওয়া যাবে৷

১৪ দিনের জন্য ঘন কালো অন্ধকারে ঢেকে থাকবে চাঁদের দক্ষিণ মেরু, যা লুনার নাইটস নামেই পরিচিত৷ তখন সেখানে তাপমাত্রা থাকে মাইনাস ১৮০ ডিগ্রি সেলসিয়াস৷ বিক্রমের সোলার প্যানেলও কাজ করবে না এই তাপমাত্রায়৷ ফলে কার্যক্ষমতা হারাবে বিক্রম৷ ফের ১৪ই অক্টোবর চাঁদের ওই পৃষ্ঠের ওপর দিয়ে উড়বে নাসার লুনার রিকনাসান্স অরবিটার৷ তখন শেষ হবে লুনার নাইটসও৷ শেষ চেষ্টা তখনই করা হবে, যাতে বিক্রম ল্যাণ্ডারের সঙ্গে যোগাযোগ করা যায়৷

আরও পড়ুন : মোদীকে খুন করার ছক তৈরি পাক স্পেশাল স্কোয়াডের : রিপোর্ট

যদিও এতদিন পরে নতুন করে বিক্রমের সঙ্গে যোগাযোগ স্থাপনের আশা প্রায় নেই বলেই মনে করছেন ইসরোর মহাকাশ বিজ্ঞানীরা৷

ল্যান্ডার বিক্রমকে ইতিমধ্যেই ‘হ্যালো’ মেসেজ পাঠিয়েছে নাসা৷ নাসা-র জেট প্রোপালসন ল্যাবরেটরি রেডিয়ো ফ্রিকোয়েন্সির মাধ্যমে বিক্রমের সঙ্গে যোগাযোগে চেষ্টা চালাচ্ছে৷ ডিপ স্পেস নেটওয়ার্কের মাধ্যমে ল্যান্ডার বিক্রমের সঙ্গে যোগাযোগ করার চেষ্টা করা হচ্ছে৷ ইসরো-র সঙ্গে চুক্তিভিত্তিক ভাবেই এই চেষ্টা করছে নাসা৷