নয়াদিল্লি:কর্মীদের স্বেচ্ছা অবসর দিচ্ছে অন্যতম বড় গাড়ি সংস্থা হোন্ডা কারস ইন্ডিয়া৷ সংস্থার গ্রেটার নয়ডা কারখানায় উৎপাদনে যুক্ত কর্মীদের স্বেচ্ছা অবসরের বিষয়ে বুধবারে উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে যাতে উত্তর প্রদেশের এই কারখানার উৎপাদনশীলতা এবং দক্ষতা বৃদ্ধি পায় ৷

কর্মী ইউনিয়নের সঙ্গে সমঝোতা করে এই স্বেচ্ছা অবসর প্রকল্প আনা হয়েছে যা ২৮ জানুয়ারি থেকে ১৭ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত চালু থাকছে ৷ হোন্ডা কারস ইন্ডিয়ার মুখপাত্র জানিয়েছেন,স্বেচ্ছা অবসর প্রকল্প অফার করা হচ্ছে উৎপাদনে যুক্ত কর্মীদের যাতে উৎপাদনশীলতা এবং দক্ষতা বৃদ্ধি পায়৷

এই প্রকল্পটি নেওয়া পুরোপুরি কর্মীর ইচ্ছার উপর নির্ভর করা হবে এবং সুবিধা দেওয়ার বিষয়টি ঠিক করা হয়েছে বিভিন্ন অ্যাসোসিয়েশনের সঙ্গে কথা বলে যাতে মালিক এবং শ্রমিক উভয় পক্ষের জন্য তা সুবিধাজনক হয়৷

মুখপাত্রের যুক্তি, এটা উৎপাদনে যুক্ত কর্মীদের কাছে অবসরের আগে একটা সুযোগ স্বরূপ যাতে তারা নতুন কোনও ভাবে কেরিয়ারে শুরু করতে পারেন৷ এই জাপানি গাড়ি কোম্পানিটির পরিচিত মডেলগুলি হল- সিটি, সিভিক এবং সিআর-ফাইভ ৷ এই সংস্থার আরও একটি উৎপাদন কেন্দ্র রয়েছে রাজস্থানের তাপুকারায়৷ সেখান থেকে Amaze, WR-V Jazz এবং BR-V মডেলগুলি বের হয়৷

গ্রেটার নয়ডা কারখানায় পুরোপুরি কাজে লাগান যাচ্ছে না যেহেতু BS-VI মডেলগুলির উৎপাদন কম রয়েছে ৷ হোন্ডা এই স্বেচ্ছা অবসর প্রকল্প আনল যখন এই ক্ষেত্রটি খারাপ সময়ের মধ্যে দিয়ে যাচ্ছে ৷ প্রসঙ্গত, ২০১৯ সালে অটোমোবাই শিল্প গত দু দশকে সবচেয়ে খারাপ সময়ের মধ্যে দিয়ে যাচ্ছে ৷ ফলে বাজারের শর্ত মেনে উৎপাদনকারীরা বাধ্য হচ্ছে উৎপাদন হ্রাস এবং কর্মী সংঙ্কোচনের মতো কঠিন সিদ্ধান্ত নিতে৷

গত বছর,টয়োটা কিরলোসকার মোটর কর্মীদের জন্য স্বেচ্ছা অবসর প্রকল্প এনেছিল তাদের কর্ণাটকে বিদাদী উৎপাদন কেন্দ্রে ৷ সেটা ছিল জাপানি সংস্থা টয়োটা এবং কিরলোসকার-এর যৌথ উদ্যোগ এবং প্রকল্পটির জন্য কর্মী এবং সুপারভাইসরদের অন্তত পাঁচ বছর ওখানে কাজ করার কথা ৷ একই রকম ভাবে দুচাকার যান উৎপাদনকারী হিরো মোটর গত বছর কর্মীদের স্বেচ্ছা অবসর দিয়েছে৷ আগে টাটা মোটর্সও খরচ কমাতে স্বেচ্ছা অবসর দিয়েছে কর্মীদের ৷