কলকাতা: ম্যানচেস্টারে পাকিস্তানকে গো-হারা হারিয়েছে বিরাট কোহলির দল৷ রবিবার রাতেই বিলেতের মাটিতে এই ‘বিরাট’ জয়ের পর দেশের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহর ট্যুইট – ‘‘ টিম ইন্ডিয়ার পাকিস্তানে আরেকবার হানা এবং একই ফলাফল৷’’

অমিতের ট্যুইটের পরই জল্পনা শুরু – তাহলে কী ওল্ডট্রাফোর্ডে ভারতের পাক-বধকে তিনি বালাকোটে ‘এয়ারস্ট্রাইকের সঙ্গে তুলনা করছেন? চলতি বছরের ১৪ ফেব্রুয়ারি জম্মু ও কাশ্মীরের পুলওয়ামায় জঙ্গি হানার ঘটনার ১২ দিনের মাথায় পাকিস্তানের খাইবার-পাখতুনখোয়া প্রদেশের বালাকোটে বিমান হানা চালিয়ে জঙ্গিদের খতম করে ভারত৷ ধ্বংস হয় জঙ্গি প্রশিক্ষণ শিবির৷

রবিবার রাতে অমিতের ট্যুইটের ভাষায় ‘বালাকোট 2.0’ – এর গন্ধ পেয়েছেন অনেকেই৷ অনেকেই বলতে শুরু করেছেন – পরিকল্পনা মাফিকই স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী এই ট্যুইট করেছেন৷ কারণ, ম্যাচ শুরুর কয়েকদিন আগেই পাকিস্তানিদের একাংশ সোশ্যাল মিডিয়ায় আপত্তিকর ভারতবিরোধী প্রচার শুরু করে৷ পাক মিডিয়াতেও ক্যাপ্টেন অভিনন্দন বর্তমানকে উদ্দেশ্য করে অপমানজনক প্রচার শুরু হয়, যার প্রক্ষাপট ছিল ওল্ডট্রাফোর্ডে ভারত-পাক বিশ্বকাপের ম্যাচ৷ শুধু অমিত শাহই নয়, দেশের প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিং এবং ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী (স্বাধীন দায়িত্বপ্রাপ্ত) কিরণ রিজিজু ঢালাও প্রশংসা করেছেন বিরাট-বাহিনীকে৷

অনেকেই বলেছেন, অমিত শাহ ট্যুইটে যা বার্তা দিয়েছেন তাতে কোনও ভাবেই বালাকোট বিমানহানার প্রসঙ্গ টানা যায় না৷ কারণ তিনি ট্যুইটে ‘হ্যাস-ট্যাগ টিম ইন্ডিয়া’ এবং ভারতের ‘নীল জার্সি’র প্রতীক ব্যবহার করেছেন৷ কিন্তু অমিতের ট্যুইটবার্তাকে অনেকেই আবার কৌশলগত বার্তা হিসাবেই ধরছেন৷ কারণ, বায়ুসেনার সঙ্গে তিনি টিম ইন্ডিয়াকে মিলিয়ে দিয়েছেন৷ বায়ুসেনাও নীল রংয়ের পোশাক পরে৷ সেক্ষেত্রে বালাকোটে এয়ারস্ট্রাইকে বায়ুসেনার জঙ্গি নির্মূল কর্মসূচির সঙ্গে ওল্ডট্রাফোর্ডে ভারতের পাক বধকে কৌশলে ভারতের পাক বধকে মিলিয়ে দিয়েছেন তিনি৷

বালাকোটে ভারতীয় বায়ুসেনার বিমানহানায় ২৫০ পাক জঙ্গি খতম হয়েছিল বলে স্বয়ং অমিত শাহ দাবি করেছিলেন৷ তার বক্তব্য নিয়ে পরে বিতর্ক কম হয়নি৷ ওই সংখ্যার সত্যতা নিয়েও বিজেপি বিরোধীরা প্রশ্ন তুলতে থাকে৷ রবিবার ম্যাচ শেষ হয়ে যাওয়ার পরই অমিতের পোস্ট নিয়েও অনেকে প্রশ্ন তুলতে থাকেন৷ রাজ্য বিজেপি নেতা সায়ন্তন বসু যেমন বলেছেন, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর পোস্ট নিয়ে আপত্তির কোনও জায়গা নেই৷ স্নায়ুযুদ্ধে ভারত জিতেছে৷ উনি সেই প্রেক্ষাপটেই বলেছেন৷ অন্যদিকে তৃণমূল কংগ্রেস নেতা এবং রাজ্যের পরিষদিয় মন্ত্রী তাপস রায় বলেন, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী কী বলেছেন জানি না৷ তবে ম্যাচ দেখে দারুণ তৃপ্ত আমি৷ পাকিস্তানকে হারানোর মজাই আলাদা৷