নয়াদিল্লি: প্রাণহানির হুমকি পরেও কেন্দ্রীয় বাহিনীতেই সুখী অমিত শাহ। তাই কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী এনএসজি স্তরের নিরাপত্তা নিতে অস্বীকার করেছেন। একটি রিপোর্ট প্রকাশিত হয়েছে যেখানে এমনটাই বলা হয়েছে। অমিত শাহ জেদ নিয়ে জানিয়েছেন তিনি সিআরপিএফ নিরাপত্তাতে সুরক্ষিত।

ভারতের গোয়েন্দা সংস্থার হুমকি সংক্রান্ত তথ্যের ভিত্তিতে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের একটি কমিটি এনএসজি স্তরের সুরক্ষা প্রয়োজনীয়তা আছে বলেই জানালেও তা কার্যকর হয়নি। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর পর অমিত শাহ একাধিকবার প্রাণনাশের হুমকি পেয়েছেন বলেই জানা গেছে। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর পূর্বসূরি রাজনাথ সিং থেকে পি চিদাম্বরম, সুশীল কুমার সিন্দে এবং শিবরাজ সিং প্রত্যেকেই এই নিরাপত্তা আওতায় ছিলেন।

একটি রিপোর্ট অনুযায়ী, জাতীয় নিরাপত্তা সংস্থার তরফে অমিত শাহকে এনএসজি স্তরের নিরাপত্তআ দেওয়ার কথা জিজ্ঞাসা করা হলে তিনি স্পষ্ট জানিয়ে দিয়েছেন তিনি সিআরপিএফ নিরাপত্তায় সম্পূর্ণ সুরক্ষিত বোধ করেন।

কেন্দ্রীয় পুলিশ বাহিনীর ১০০ জন কমান্ডো তাঁকে সব সময় ঘিরে রাখে যারা নিরাপত্তার সব খুঁটিনাটি নিয়ে সবসময় অবগত। উন্নত সুরক্ষা যোগাযোগ ব্যাবস্থাতেও প্রশিক্ষিত। এই ব্যবস্থা তাঁর বাসভবন ও অফিস সবজায়গাতেই থাকে। রাজধানীর বাইরে কোন জনসভা থাকলে সেই রাজ্যের পুলিশ তাঁর সুরক্ষার দায়িত্ব নেন পাশাপাশি দিল্লি পুলিশ বাসভবনের বাইরের সুরক্ষার দায়িত্বে থাকেন। ৬এ কৃষ্ণ মেনন মার্গ, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর দায়িত্ব পাওয়ার পর তাঁর বাসভবন দিল্লি পুলিশের পঞ্চাশের বেশিজন নিরাপত্তার দায়িত্ব থাকেন।