হলিউডের একসঙ্গে ১০০ জন বিখ্যাত অভিনেত্রীর নগ্ন ছবি ফাঁসের মতো ঘটনা রীতিমমতে সাড়া ফেলে দিয়েছে সংবাদ মাধ্যমে৷ এই ঘটনাটি ঘটে ৩১ আগস্ট৷ নগ্ন ছবি ফাঁসের তালিকায় রয়েছে জেনিফার লরেন্সের মতো প্রথম সারির সুন্দরীও৷ দু-একটি নয়, ৬০টি নগ্ন ছবি ফাঁস হয়েছে অ্যাপলের  অনলাইন  স্টোরেজ  আই ক্লাউড থেকে।

‘হাঙ্গার গেমস’-এর শ্যুটিং চলা কালীন লরেন্সের ব্যক্তিগত মুহুর্তগুলো মোবাইল ক্যামেরায়  বন্দি করে ‘আই ক্লাউড’-এ রেখেছিলেন তিনি । সেখান থেকেই  হ্যাক করা হয় সেই বিশেষ মুহুর্তের ছবি এবং ফোরচ্যান নামের ওয়েবসাইটে পোস্ট করা হয় সেগুলি। জেনিফারের মুখপাত্র এ খবরের সত্যতা স্বীকার করে আইনি পদক্ষেপ নেওয়ার কথা জানিয়েছেন।

পড়ুন আরও- নিয়মিত যৌন মিলন কীভাবে আপনাকে তিলোত্তমা করে তুলবে জেনে নিন!

ট্যুইটারে ২৪ বছর বয়সী লরেন্স বিস্ময় প্রকাশ করে বলেছেন মানুষের ব্যক্তিগত জীবনকে নিয়ে কেও এরকম করতে পারে তা তাঁর ধারনাতেই ছিলনা৷ লরেন্সের পাশাপাশি হলিউডের ‘ফাইনাল ডেস্টিনেশন’-র নায়িকা ম্যারি এলিজাবেথ উইনস্টিডও একই ঘটনার স্বীকার হন। কিন্তু পপ গায়িকা ভিক্টোরিয়া জাস্টিস ও আরিয়ানা গ্র্যান্ডের মতো কয়েকজন এই ঘটনাকে ফটোশপের কারসাজি বলে মনে করছেন৷

নগ্ন ছবি ফাঁস হওয়ার তালিকায় রয়েছেন পপগায়িকা রিয়ান্না, সেলেনা গোমেজ, অ্যাভ্রিল লেভিন, কারা ডেভেভিংনে, অভিনেত্রী কেট বোসওর্থ, হিলারি ডাফ, অ্যাম্বার হার্ড, গ্যাব্রিয়েলে ইউনিয়ন, হেডেন প্যানেট্টিয়ের, জেনি ম্যাককার্থি, হোপ সলো, রিয়েলিটি টিভি তারকা কিম কারদাশিয়ান, মডেল-অভিনেত্রী কেলি ব্রুক, কেট আপটন, কেলি কুকো, কিকি পালমারের মতো বহু তারকা৷  বিপুলসংখ্যক ছবি কিভাবে হ্যাকাররা ফাঁস করল তা জানতে শুরু হয়েছে তদন্ত৷

Comments are closed.