নয়াদিল্লি: দিন দিন বিষাক্ত হচ্ছে দিল্লির বাতাস৷ শ্বাস নিতে অস্বস্তি বোধ করছেন শহরবাসী৷ কবে মিলবে সুরাহা? নেই কোনও উত্তর৷ প্রশাসনির স্তরেও কোনও হেলদোল চোখে পড়ছে না বলে অভিযোগ ‘আম আদমির’৷ তার উপর রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী দেশের বাইরে৷ ছুটি কাটাতে দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল সপরিবারে গিয়েছেন বিদেশ৷

আরও পড়ুন: উত্তেজনা বাড়িয়ে ফের দক্ষিণ কোরিয়ার সঙ্গে সামরিক মহড়া আমেরিকার

স্থানীয় সংবাদমাধ্যমে খবর, পরিবারের সঙ্গে ছুটি কাটাতে অরবিন্দ কেজরিওয়াল দুবাই গিয়েছন৷ এই নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় শুরু হয়েছে সমালোচনা৷ কেউ কেউ লেখেন, ‘‘মুখ্যমন্ত্রী কেবল পরিবারের কথাই ভাবেন৷ দিল্লির এখন দমবন্ধকর অবস্থা, শ্বাস নিতে পারছে না কেউ৷ এমন সময় তিনি তড়িঘড়ি টিকিট কেটে দুবাই চলে গিয়েছেন৷’’ মুখ্যমন্ত্রীর বিদেশ ভ্রমণ নিয়ে তোপ দেগেছে বিজেপিও৷ মনোজ তিওয়ারি হিন্দিতে ট্যুইট করে অরবিন্দ কেজরিওয়ালের সমালোচনা করেন৷ লেখেন, পার্টি ডোনেশনের নামে কালো টাকা সাদা করতে দুবাই গিয়েছেন দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী৷

ফাইল ছবি

দিল্লি বিধানসভার বিরোধী নেতা বিজেন্দ্র গুপ্তার গলাতেও মনোজ তিওয়ারির সুর৷ কেজরিওয়ালের হঠাৎ বিদেশ ভ্রমণ নিয়ে প্রশ্ন তোলেন তিনিও৷ তাঁর মতে, এই দুবাই ভ্রমণের পিছনে অন্য কোনও কারণ আছে৷ তিনি জানান, শুক্রবার রাতে এয়ার ইন্ডিয়ার বিমানে আপ সুপ্রিমো দুবাই যান৷ ১১ নভেম্বর তাঁর দেশে ফেরার কথা৷ আপ কেজরিওয়ালের ভ্রমণ নিয়ে মুখে কুলুপ এঁটেছে৷ নিশ্চয়ই অন্য কোনও ব্যাপার রয়েছে৷

আরও পড়ুন: ‘বাংলার মুখ্যমন্ত্রী থেকে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর পরিবারের লোক গরু পাচারকারী’

যদিও বিজেপির তোলা এই অভিযোগ উড়িয়ে গিয়েছে আপ৷ দলের মুখপাত্র রাঘব চাঁদা সাংবাদিক সম্মেলন করে জানান, মুখ্যমন্ত্রী তাঁর বন্ধুর পারিবারিক অনুষ্ঠানে যোগ দিতে বিদেশ গিয়েছেন৷ পাল্টা প্রশ্ন ছুঁড়ে দিয়েছে বিজেপি৷ জানিয়েছে, এটা কোনও সরকারি সফর নয়৷ না তো ফ্যামিলি ট্রিপ৷ তাহলে মুখ্যমন্ত্রীর দুবাই যাওয়ার কারণ কী? তিনি কোথায় থাকছেন কাদের সঙ্গে দেখা করবেন সব তথ্য কেন গোপন করা হচ্ছে? প্রশ্ন তোলেন বিজেন্দ্র গুপ্তা৷