স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা: জল নিকাশের ব্যবস্থা করতে জরুরী বৈঠক হল পুরসভায়৷ নিম্নচাপের বৃষ্টি সাময়িক বিশ্রাম নিয়েছে। আপাতত পরিষ্কার কলকাতার আকাশ৷ কিন্তু বিপর্যয় কাটে নি এখনও৷ আগামী ৪৮ ঘন্টায় আরও ভারী বৃষ্টির পূর্বাভাস দিয়েছে হাওয়া অফিস৷ কলকাতার একাধিক স্থানে এখনও জল জমে রয়েছে৷ হাওড়া স্টেশন, নিমতলা শ্মশান ঘাট, ঠনঠনিয়া, মুক্তারাম স্ট্রিট, বিদ্যাসাগর স্ট্রিট, সল্টলেক সেক্টর ফাইভ এখনও জলের তলায়৷
তার ওপরে রয়েছে হাওয়া অফিসের সতর্কবার্তা৷ এই পরিস্থিতিতে পুরসভার রবিবারের ছুটি বাতিল করা হয়েছে৷ সকল কর্মীদের রবিবার অতি অবশ্যই উপস্থিত থাকতে বলা হয়েছে পুরসভায়৷ প্রবল বর্ষণের জেরে আগামী ২৪ ঘণ্টার মধ্যে জরুরী পরিষেবার ব্যবস্থা নেওয়ার সিদ্ধান্ত হয়েছে পুরসভায়। জল নিকাশের বিষয় নিয়ে ইতিমধ্যে বরো ইঞ্জিনিয়ারদের সঙ্গে ভিডিও কনফারেন্সে জরুরী বৈঠক করেছেন মেয়র শোভন চট্টোপাধ্যায়৷ তিনি আশ্বাস দিয়েছেন ভাটার সময় দ্রুত জল সরে যাবে কলকাতার বিভিন্ন এলাকা থেকে৷
অন্যদিকে, এদিনই হাওড়ার বিপর্যস্ত এলাকা পরিদর্শনে যাচ্ছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷ নবান্নে মুখ্যমন্ত্রী জানিয়েছেন, ভারী বর্ষণ ও কোটালের জোড়া দুর্ভোগের শিকার হচ্ছে সাধারণ মানুষ৷ রাজ্যে মোট ৫০ হাজার মানুষ ক্ষতিগ্রস্ত বলেও জানা গিয়েছে৷
আবহাওয়া দফতর সূত্রের খবর, এই মুহূর্তে নিম্নচাপ অবস্থান করছে যশোরে৷ আগামী  ২৪ ঘণ্টার মধ্যে তা সরে আসবে পশ্চিমবঙ্গের দিকে৷ ফলে কলকাতা সহ দক্ষিণবঙ্গে আগামী ৪৮ ঘন্টায় অতি ভারী বৃষ্টির সতর্কতা দিচ্ছে হাওয়া অফিস৷  

এই সংক্রান্ত আরও খবর:

প্রবল বৃষ্টিতে বানভাসি তিলোত্তমা

বৃষ্টির সকালে মেট্রোয় বিভ্রাট

রাতভর বৃষ্টিতে বেহাল রেল পরিষেবা

রাতভর বৃষ্টিতে জলমগ্ন শহর: গভীর নিম্নচাপে বৃষ্টি চলবে

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

জীবে প্রেম কি আদৌ থাকছে? কথা বলবেন বন্যপ্রাণ বিশেষজ্ঞ অর্ক সরকার I।